জেলা পরিষদ নির্বাচন; সিলেটের ১১ চেয়ারম্যানের প্রার্থীতা বাতিল

ত্রুটিপূণ মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা 

ত্রুটিপূণ মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা 

সিলেটের ৪ জেলার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১১ জন চেয়ারম্যানের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। ১৮ সেপ্টেম্বর রোববার রিটার্নিং কর্মকর্তারা ত্রুটিপূণ মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা  দেন।

জানা গেছে, সিলেট জেলা পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে মনোনয়ন যাচাই-বাচাই শেষে ৩ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। মনোনয়ন যাচাই-বাচাই শেষে সিলেটের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা  মো. মজিবর রহমান তাদের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেন। বাতিলকৃতদের মধ্যে রয়েছেন, ১ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য মোঃ শাহা নুর, ৩ ওয়ার্ডের মোহাম্মদ শহিদুর রহমান ও ১৩ ওয়ার্ডের মোহাম্মদ আব্দল গফ্ফার বাবর। তাদের মধ্যে ২ জন ঋণখেলাপি ও ১ জনের হলফনামায় সমস্যা জনিত কারণে মনোনয়ন বাতিল করা হয় বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।

অপর দিকে সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী থাকায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন। তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে ৫৫ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

সুনামগঞ্জ : জেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচনী হলফনামায় মামলা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করায় দুই সাধারণ সদস্য পদ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছেন সুনামগঞ্জ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের সময় পুরুষ ৪২ জনের মধ্যে দুজনের প্রার্থীতা বাতিল করা হয় এবং মহিলা ১১জনের মধ্যে সকলের মনোনয়ন পত্রের বৈধতা দেওয়া হয়। মোট ৫৫ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন।

মৌলভীবাজার : জেলা পরিষদ নির্বাচনে মৌলভীবাজারে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ১জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩ জনের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই শেষে ঋণখেলাপি এবং তথ্য গোপন রাখায় তাদের মনোনয়ন বাতিল করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা  মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন।

হবিগঞ্জ : জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যানসহ দুই প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে। হবিগঞ্জ  জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে শুরু হয় মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই। চলে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত। যাচাই-বাছাই  শেষে হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহীন আহমেদ ও ২নং ওয়ার্ড বানিয়াচং-এর সাধারণ সদস্য প্রার্থী আশিক মিয়ার মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষণা করেন সহকারী রিটার্নিং ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা  মো. সাদিকুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী- ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর আপিল আবেদন করা যাবে। আর আপিল নিষ্পত্তি হবে ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর এবং ২৬ সেপ্টেম্বর প্রতীক বরাদ্দ হবে।

পাঠকের মন্তব্য