পাইকগাছায় সাবেক ইউপি সদস্যকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় জিডি  

সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য কল্যাণীকে লাঞ্ছিত

সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য কল্যাণীকে লাঞ্ছিত

পাইকগাছায় মহোৎসবকে কেন্দ্র করে সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য কল্যাণীকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে করিম ফকির (৩৫) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সোলাদানা গ্রামে এ অনাকাঙ্খিত এ ঘটনা ঘটেছে। করিম সোলাদানা গ্রামের জিন্নাত ফকিরের ছেলে। পুলিশ ও সোলাদানা ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ হয়েছে। 

স্থানীয় সুত্র  ও থানা পুলিশ জানিয়েছেন, ১৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় সোলাদানা গ্রামের মৃতঃ নগেন্দ্রনাথ মন্ডলের ছেলে সুভাষ মন্ডলের বাড়ীতে মতুয়া মহোৎসবের কীর্ত্তন শুরু হয়। ধীরে-ধীরে ভক্তদের ভিড় বাড়তে থাকে। কিন্ত অভিযোগ উঠেছে রাত ৯ টার দিকে মতুয়া সংঘের ভক্তরা ডাঙ্কা-করতাল বাজিয়ে মহোৎসব স্থলে  যাবার পথে স্থানীয় জিন্নাত ফকির হুমকি স্বরুপ বাজি-বাজনা না করে মহোৎসবে যাবার কথা বলেন। 

এ নিয়ে কথা-কাটাকাটি ও এক পর্যায়ে উত্তেজনা ছড়ালে দ্রুত স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রবীর গোলদার সহ অনেকেই ঘটনাস্থলে জড়ো হোন। 

জানা গেছে, দু'পক্ষের আলোচনান্তে জিন্নাত ফকির অন্যায় স্বীকার করলে বিষয়টি'র নিস্পত্তি ঘটে। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে ঐ রাত থেকে কেউ-কেউ উস্কানী ছড়ানোর চেষ্টা চালায়। এ সম্পর্কে স্থানীয় বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য কল্যাণী মন্ডল অভিযোগ করেন বৃহস্পতিবার সকালে মহোৎসব যাবার সময় জিন্নাত ফকিরের ছেলে করিম ফকির উগ্রভাবে রাতের ঘটনার পুনরাবৃত্তি করে  গতিরোধ করে গালমন্দ শুরু করে। 

এক পর্যায়ে প্রতিবাদ করা মাত্রই করিম আমার লাঞ্ছিত করে গলাধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এ  ঘটনা জানাজানি হলে মহোৎসবের ভক্ত ও স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে পরিস্থিতি বুঝে করিম গা ঢাকা দেয়। খবর পেয়ে পরবর্তীতে থানা পুলিশ সহ সোলাদানা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান গাজী ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পরিস্থিতি শান্ত হয়। 

এ ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য কল্ল্যানী মন্ডল বাদী হয়ে করিম ফকিরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, করিমের এ আচরণে তার পরিবারের সদস্যরাও মেনে নিতে পারেনি। এ বিষয়ে সোলাদানা  ইউপি চেয়ারম্যান আঃ মান্নান গাজীর ব্যবহৃত মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার মতামত নেওয়া সম্ভব হয়নি। 

তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানোর তথ্য দিয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জিয়াউর রহমান বলেন, মহোৎসব ঘিরে রাতের প্রথম ঘটনা সুন্দরভাবে সমাধান হয় কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে করিম ফকির নামে এক ব্যক্তি পরিবেশ বিঘ্নিত করার চেষ্টা করেন। এ ঘটনাটি কেউ যেন ভিন্ন ইস্যুতে না নিতে পারে সে বিষয়ে তিনি সকলকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন।

পাঠকের মন্তব্য