‘সিলটি পাঞ্চায়িত’ নতুন রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ 

‘সিলটি পাঞ্চায়িত’ নতুন রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ 

‘সিলটি পাঞ্চায়িত’ নতুন রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ 

স্থানীয় দাবী দাওয়া, নায্য অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করেছে নতুন রাজনৈতিক সংগঠন ‘সিলটি পাঞ্চায়িত’। প্রাথমিক ভাবে সিলেট বিভাগের মধ্যেই সংগঠনটির কার্যক্রম পরিচালিত হবে। আগামী নির্বাচনে বিভাগের ১৯টি আসনেই নিজস্ব প্রার্থী দিতে চায় নবগঠিত রাজনৈতিক এই সংগঠন।

সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে সিলেট মহানগরের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন করে ‘সিলটি পাঞ্চায়িত’র আত্মপ্রকাশ ঘটে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। 

তিনি বলেন- ‘ঐতিহাসিক গণভোটের মাধ্যমে সিলেট বিভাগের মানুষ ভারত ছেড়ে পূর্ব পাকিস্তান তথা আজকের বাংলাদেশে যোগদানের পক্ষে ভোটের মাধ্যমে রায় দেয়। যার ফলে আমরা আজকের বাংলাদেশে আছি। সিলেটবাসী মহা মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান রেখেছেন। তারা প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের জন্য ফান্ড তৈরি করেন। দেশের সবচেয়ে বেশি প্রবাসী আয় এই সিলেটের মানুষ প্রেরণ করেন। কিন্তু এই সিলেট আজ অবহেলিত। ঢাকা, চট্টগ্রাম ও অন্যান্য বিভাগের জন্য হাজার-হাজার কোটি টাকা ব্যয় করলেও এই সিলেট বিভাগে ব্যয় করা হয় নাই। সুষম উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত সিলেট বিভাগ।

নাসির উদ্দিন আরও বলেন- ‘সিলেট একমাত্র একটি বিভাগ যার নিজস্ব ভাষা ও পৃথক অক্ষর রয়েছে। যা অন্যান্য বিভাগে নেই। আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত সিলেটবাসীর মুখের ‘সিলেটি নাগরি ভাষা’ আজ অবহেলিত। এ নাগরি অক্ষর চর্চা হয় না। তাই আমরা জোর দাবি জানাচ্ছি সিলেট বিভাগের প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নাগরি ভাষার অক্ষর শিক্ষা দেওয়া হোক।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন- ‘সিলেট বিভাগে যেসব সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে সে সব প্রতিষ্ঠানে শত-ভাগ সিলেট বিভাগের স্থায়ী বাসিন্দাদের নিয়োগ দেওয়া হোক। কেননা ঘরে ঘরে সিলেট বিভাগের স্থায়ী বাসিন্দারা তাদের উপযুক্ত ছেলে মেয়েদের বিয়ে সাদী দিতে পারছেন না কারণ তাদের চাকুরী  নেই। এতে সিলেট বিভাগে সামাজিক অশান্তি সৃষ্টি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়- সিলেট বিভাগের বাসিন্দাদের গ্যাস প্রথমে দিতে হবে। যদি অতিরিক্ত গ্যাস তাকে সেক্ষেত্রে অন্যদের দিতে আপত্তি নেই। তবে অগ্রধিকার ভিত্তিতে সিলেট বিভাগের বাসিন্দাদের মধ্যে গ্যাস দিতে হবে। এছাড়াও সিলেটে বিভাগে যেসব খাস জমি রয়েছে সেসব জমি সিলেট বিভাগের ভূমিহীন স্থায়ী বাসিন্দাদের দিতে হবে। 

নাসির উদ্দিন প্রতি বছরের বন্যা থেকে সিলেট বিভাগকে রক্ষা করতে নদী খননসহ যাবতীয় মাস্টার প্লান করতে সরকারের প্রতি দাবি জানান। এছাড়া সিলেট বিভাগ থেকে সরিয়ে নেওয়া হাই কোর্টেও বেঞ্চ পুনর্বহাল করার দাবি জানান। সিলেটে ‘হাওর উন্নয়ন বোর্ড’ স্থাপনার করতে হবে এবং এ সকল দাবি বাস্তবায়নে সিলেট বিভাগকে স্বায়ত্তশাসনের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ‘সিলটি পাঞ্চায়িত’ নামক নতুন এই দলের সভাপতি ও কৃহত্তর সিলেট ছাত্র ফ্রন্টের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমদ চৌধুরী বলেন- ‘আমাদের দাবি বাস্তবায়নে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট বিভাগের ১৯টি আসনে দলীয় প্রার্থী দেবেন বলে জানান। আমরা বিশ্বাস করি- সিলেটবাসী আমাদের সঙ্গে থেকে পুরো বিভাগের উন্নয়নে অবদান রাখার সুযোগ দিবেন। তবে সংগঠনটি এখনও অনিবন্ধিত জানিয়ে তিনি বলেন- নিবন্ধন প্রক্রিয়া শীঘ্রই শুরু করবেন তারা।

পাঠকের মন্তব্য