কামাল হোসেন একজন রহস্যপুরুষ : ওবায়দুল কাদের

সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

দেশের বাইরে চলে যাওয়ার পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবেই সরকার বিদেশে অর্থপাচার করছে বলে মন্তব্য করায় বিশিষ্ট আইনজীবী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনকে একহাত নিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন ড. কামাল হোসেন মুখ খুলেছেন। তিনি বলেছেন- দেশের বাইরে যেতে হবে তাই সরকার টাকা পাচার করছে। কামাল হোসেন একজন রহস্যপুরুষ। 

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুকে যখন গ্রেফতার করা হয়, কামাল হোসেন সাহেব গাড়িতে করে এসে আজকের ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলের সামনে গাড়ি থেকে নেমে ভেতরে ঢুকে পড়েন। তারপর খবর পেলাম, তিনি পাকিস্তানিদের সঙ্গে মিলেমিশে চলে গেছেন পাকিস্তানে। কামাল সাহেব বঙ্গবন্ধুর দয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছিলেন।

শুক্রবার সকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এসব কথা বলেন।

ড. কামাল হোসেনের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, লজ্জা করে না ? কিভাবে আপনি বাংলাদেশে থেকে বঙ্গবন্ধুকে গ্রেফতারের পর ইন্টারকন্টিনেন্টালে আশ্রয় নিতে গিয়ে ওদের (পাকিস্তানি) কাছে ধরা দিয়েছেন। আজকে কামাল হোসেন অর্থপাচারের কথা বলেন। ড. কামাল হোসেন সাহেব কী করেছেন? কালো টাকা সাদা করেছেন। 

ড. কামাল হোসেনের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, আপনি অর্থপাচার করেন। তারেকের নাম বলেন না। নিজে অর্থপাচার করে আপনার ইহুদি জামাতার মাধ্যমে কত কোটি টাকা পাচার করেছেন দেশের মানুষ তার হিসাব চায়। ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে আদালতে গিয়ে তারপর আদেশ নিয়ে ট্যাক্স জমা দিয়েছেন। তিনি এখন শেখ হাসিনাকে কটাক্ষ করে বড় বড় কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কামাল হোসেন সাহেব- আমরা তো জানতাম আপনার পকেটে সবসময় একটা ভিসা থাকে। হঠাৎ এই আছেন তো এই নেই। দলের লোকেরাও বলে। এই হলো ড. কামাল হোসেন। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ১-১১তে কী ভূমিকা আপনাদের ছিল ? সেদিন জরুরি সরকারের সঙ্গে যোগসাজশ করে আপনারা এখানে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে সরকার গঠনের পরিকল্পনা করেছিলেন। সেই রঙিন খোয়াব রয়েই গেছে। আজও আবার তত্ত্বাবধায়কের নামে জরুরি সরকার চাইছেন? তত্ত্বাবধায়কের ভূত মাথা থেকে নামান।

পাঠকের মন্তব্য