পটুয়াখালীতে ভাস্কর্যের গলা কাটায় আটক যুবক

যুবকের নাম শরিয়তুল্লাহ (২০)

যুবকের নাম শরিয়তুল্লাহ (২০)

পটুয়াখালীর দুমকিতে  মুক্তিযোদ্ধার ভাস্কর্য ভাঙ্গার অভিযোগে শরিয়তুল্লাহ (২০) নামের এক যুবককে হাতে নাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। 

গ্রেফতারকৃত যুবক চলতি বছর দুমকি সরকারি জনতা ডিগ্রী কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। এর আগে সে মাদ্রাসায় পড়াশোনা করত।  এব্যাপারে ধৃত যুবকের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে  মামলা দায়ের হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টার দিকে দুমকি উপজেলা কমপ্লেক্সের জয়বাংলা চত্ত্বরে জেলা পরিষদের অর্থায়ণে নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ  ভাস্কর্যের ওপরে উঠে মাথার অংশ ভেঙ্গে মাটিতে ফেলে দেয়।

এসময় শব্দ শুনে উপজেলা পরিষদের নিরাপত্তা কর্মী ও কোয়ার্টারের কর্মকর্তা -কর্মচারীরা  পালানোকালে হাতে নাতে তাকে আটক করতে সক্ষম হন। ধৃত যুবকের গ্রামের বাড়ি উপজেলার দুমকি মাদ্রাসা ব্রিজ এলাকায়। তার পিতার নাম মিজানুর রহমান মৃধা বলে জানা য়ায়। সে তবলিক জামায়াতের একজন সক্রিয় কর্মী।

দুমকি উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ  সাইফুর রহমানের নির্দেশে ধৃত যুবককে ওই রাতেই দুমকি থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এব্যাপারে দুমকি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সৈয়দ গোলাম মর্তুজা বাদি হয়ে ওই যুবকের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের অপরাধে একটি মামলা দায়ের করেছে।

দুমকি থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোহাম্মদ মাহবুব আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিশেষ ক্ষমতা আইনের নিয়মিত মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আজ (শনিবার) কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য