খলিলপুর বিদ্যালয়ে এসএসসি ফরম পুরণে অতিরিক্ত ফি আদায় 

ফরিদপুর সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়ন

ফরিদপুর সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়ন

ফরিদপুর সদর উপজেলার মাচ্চর ইউনিয়নের খলিলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

বোর্ড থেকে সব মিলিয়ে বিজ্ঞান বিভাগে ২১৪০ টাকা মানবিক ও ব্যবসা বিভাগে ২০২০ টাকা করে নির্ধারণ করা হলেও নানা অজুহাতে এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পাঁচ থেকে সাতশত টাকা অতিরিক্ত আদায় করেছে। এ অতিরিক্ত টাকা দিতে অভিভাবকদের বেশ ভোগান্তিতে পরতে হয়েছে।

অভিভাবকেরা জানান, শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য ২১৮০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। কিন্তু স্কুল থেকে ২৬৮০ টাকা ফি আদায় করা হয়েছে। এছাড়াও টাকা জমা নিয়ে কোন রশিদও দেয়নি।  আমাদের পাশের এলাকার স্কুলে বোর্ড নির্ধারিত ফি আদায় করেছে। অতিরিক্ত ফি আদায়ের ব্যাপারে স্কুল কর্তৃপক্ষ মডেল টেস্ট, মিলাদ, পূজা, খেলাধুলাসহ নানা অজুহাত দেখাচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন শিক্ষার্থী অভিযোগ করে, ভর্তির সময় সেশন চার্জ ও বেতন দেওয়ার পরও ফরম পূরণের সময় প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে এসব খাতে টাকা আদায় করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্না শেখ এ প্রতিবেদককে বলেন, বোর্ড নির্ধারিত ফি ছাড়া কোন অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হয়নি। কতজন শিক্ষার্থী ২০২৩ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন সঠিক তথ্য আমার জানা নেই। এসব তথ্য ও টাকা নেওয়ার বিষয়ে সকল তথ্য শ্রেণী শিক্ষদের কাছে আছে। 

দুই সেকশনের শ্রেণী শিক্ষকের কাছে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তারা বলেন আমরা শুধু মাসিক বেতন গ্রহণ করি। ফরম পুরণের টাকার বিষয়ে প্রধান শিক্ষক ও সহকারি প্রধান শিক্ষক জানেন। 

সহকারি প্রধান শিক্ষক মিকাঙ্কো কর বলেন, আমরা ফরম পুরণ বাবদ ২৬৭৫ টাকা করে নিয়েছি। অতিরিক্ত টাকা বিভিন্ন প্রাক্টিক্যাল পরীক্ষা, খেলাধুলা, পূজা, মিলাদ ইত্যাদি কাজে নেওয়া হইছে। রশিদ কেন দেওয়া হয়নি এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সময়ের অভাবে রশিদ দেয়া হয়নি। রশিদ লেখা হইছে। ছাত্রছাত্রীরা চাইলে দিয়ে দিবো। 

এ বিষয়ে সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মাসুদুর রহমান বলেন, বোর্ড নির্ধারিত ফি এর বাহিরে অতিরিক্ত কোন টাকা কোন বিদ্যালয় নিতে পারবে না। এ বিদ্যালয়ে কেন অতিরিক্ত টাকা আদায় করেছে তা জানা নেই। তবে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাঠকের মন্তব্য