বিশেষ ট্রেনের সুবিধা পাচ্ছেন না রংপুরের মানুষ ! 

বিশেষ ট্রেনের সুবিধা পাচ্ছেন না রংপুরের মানুষ ! 

বিশেষ ট্রেনের সুবিধা পাচ্ছেন না রংপুরের মানুষ ! 

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে যাত্রী সাধারণের সুবিধার্থে রেল বিভাগ ৯ জোড়া বিশেষ ট্রেন চলাচলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে রংপুরের মানুষ এই বিশেষ ট্রেনের সুবিধা পাচ্ছেন না। এখানকার মানুষের ভরসা আন্তঃনগর ট্রেনই। যার টিকিট পাওয়া সোনার হরিণের চেয়ে দামি।  

সূত্রে জানা গেছে, রংপুর এক্সপ্রেস, লালমনি এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, নীলসাগর এক্সপ্রেসসহ ৭ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করছে রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলা থেকে। এসব ট্রেনের যাতায়াতে এমনিতেই টিকিট পাওয়া যায় না। এ অঞ্চলের মানুষ আশা করেছিল ঈদে হয়তো রংপুরের ভাগে একটি বিশেষ ট্রেন পড়বে। কিন্তু তা না হওয়ায় ট্রেনের নিয়মিত অনেক যাত্রীই ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।  

জানা গেছে, ঈদ যাত্রার বিশেষ ট্রেনগুলোর মধ্যে চাঁদপুর ঈদ স্পেশাল ১ ও ৩ চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম; চাঁদপুর ঈদ স্পেশাল ২ ও ৪ চাঁদপুর-চট্টগ্রাম-চাঁদপুর; দেওয়ানগঞ্জ ঈদ স্পেশাল ৫ ও ৬ ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা; ময়মনসিংহ ঈদ স্পেশাল ৭ ও ৮ চট্টগ্রাম-ময়মনসিংহ-চট্টগ্রাম; ঈদ স্পেশাল ৯ ও ১০ সিলেট-চাঁদপুর-সিলেট রুটে ঈদের আগে ৪ দিন এবং ঈদের পরে ৫ দিন চলাচল করবে। এছাড়া শোলাকিয়া ঈদ স্পেশাল ১১ ও ১২ ভৈরব বাজার-কিশোরগঞ্জ-ভৈরব বাজার; শোলাকিয়াা ঈদ স্পেশাল ১৩ ও ১৪ ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে শুধুমাত্র ঈদের দিন চলাচল করবে। এছাড়া ঈদ স্পেশাল ১ ও ২ বী.মু.সি.ই (পঞ্চগড়)-জয়দেবপুর-বী.মু.সি.ই; ঈদ স্পেশাল ১৫ ও ১৬ ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটে ১৮ থেকে ২০ এপ্রিল এবং ২৪-২৫ এপ্রিল চলাচল করবে। 

রংপুর নগরীর কামালকাছনা এলাকার সামচ্ছোজোহা, আবির ইসলামসহ বেশ কয়েকজন যাত্রী ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, ঈদের সময় এমনিতেই সড়ক পথে চাপ বাড়ে। ঢাকা থেকে রংপুরে আসতে ১২ থেকে ১৬ ঘণ্টা পর্যন্ত লেগে যায়। এ অবস্থায় ট্রেনেই ছিল নিরাপদ যাতায়াতের মাধ্যম। রেলমন্ত্রী রংপুর বিভাগের মানুষ। রংপুরের মানুষের কথা ভেবে একটি বিশেষ ট্রেন চালুর দাবি জানিয়ে তারা রেলমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষন করেন। 

রংপুর রেল স্টেশনের সুপার শংকর গাঙ্গুলি বলেন, রংপুরে এখন পর্যন্ত কোন বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়নি। 

   


পাঠকের মন্তব্য