ক্লাইমেট-স্মার্ট প্রযুক্তির মাধ্যমে স্মার্ট কৃষি গড়ে হবে: এমপি রশীদুজ্জামান 

সংসদ সদস্য মো. রশীদুজ্জামান

সংসদ সদস্য মো. রশীদুজ্জামান

"ক্লাইমেট-স্মার্ট প্রযুক্তির মাধ্যমে খুলনা কৃষি অঞ্চলের জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন" প্রকল্পের আওতায় পাইকগাছায় কৃষির বিভিন্ন সমস্যা ও সমাধানে প্রযুক্তির সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কৃষক সমাবেশে খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সংসদ সদস্য মো. রশীদুজ্জামান অতীতের সোনাতনী কৃষি ব্যবস্থা থেকে বেরিয়ে স্মার্ট কৃষি গড়তে এবং উপকূলীয় পাইকগাছা-কয়রায় লবণ পানি মুক্ত করে বহুমুখী ফসল উৎপাদনে কৃষি বিপ্লবের ডাক দিয়েছেন। 

তিনি বলেন, অধিক মুনাফার আশায় প্রভাবশালীরা ৮০ দশকে এ অঞ্চলে পরিবেশ বিধ্বংসী লবণ পানির চিংড়ি ঘেরের বিরুদ্ধে শুরুতেই আন্দোলন গড়ে তুলি। এ সংগ্রামে হাজার-হাজার নারী-পুরুষ যোগ দেয়। এরশাদ সরকার আমলে ঘের মালিকরা প্রশাসনের ছত্রছায়ায় মিথ্যা-হামলা-মামলা ও দমন পীড়ন চালায়। আন্দোলনের এক পর্যায়ে দেলুটিতে ঘের মালিকের মদদপুষ্টদের গুলিতে করুণাময়ী সরদার নিহত হন। সেই আন্দোলনের ফসল হিসেবে আজ দেলুটির ২২নং পোল্ডারে মিষ্টি পানিতে আমন ও রবি মৌসুমে ধান, তরমুজ, তিল, ভুট্টা, সূর্যমুখি সহ নানা রকমের সবজি আবাদ করে কৃষকরা আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। 

রোববার সকালে উপজেলার গড়ইখালী ইউপি'র কানাখালী সার্বজনীন মহা নামযজ্ঞ আঙিনায় কৃষক-কৃষাণি সমাবেশে প্রধান অতিথি'র বক্তৃতায় এ বিপ্লবের ডাক দেন। তেমনি গড়ইখালী ইউনিয়নে সমৃদ্ধ কৃষি ব্যবস্থা গড়ে উঠছে। যা দিন-দিন স্মার্ট পদ্ধতিতে বহুমুখী ফসলের প্রসার ঘটছে। তিনি প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনামতে কোথাও এক ইঞ্চি জমি ফেলে রাখা যাবেনা এবং  সেই ঘোষনা অনুয়ায়ী  ঘের মালিক ও জমির মালিকদের আমন মৌসুমে সব চিংড়ি ঘেরে ধান রোপনের নির্দেশনা দেন। কৃষক-কৃষাণিদের দাবির প্রেক্ষিতে উপকূলীয় এলাকায় খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে সেচ সমস্য সমাধানে মিষ্টি পানি সংরক্ষণের জন্য খাল খনন ও মিনি পুকুর খনন কর্মসূচি, লবন সহিষ্ণু বীজ ধান সরবরাহ, কৃষি যন্ত্রপাতি সরবরাহ, কৃষক প্রশিক্ষণ সহ সর্বোপরি যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে গুরুত্বরোপ করা হয়।  

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত এ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহেরা নাজনীন।

সভায় বিশেষ ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার ইকবাল মন্টু, ভাইস চেয়ারম্যান লিপিকা ঢালী, কয়রা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিশীথ রঞ্জন মিস্ত্রী, ইউপি চেয়ারম্যান জিএম আব্দুস ছালাম কেরু, সাবেক ইউপি' চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বিশ্বাস ও সবেক ভাইস চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ মন্ডল। 

শুরুতে স্বাগত বক্তৃতা উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ অসীম কুমার দাশ। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শেখ তোফায়েল আহম্মেদ তুহিনের সঞ্চালনায় সভায় বক্তৃতা করেন, প্যানেল চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শরৎ চন্দ্র মন্ডল, আ' লীগ নেতা বিজন বিহারী রায়, এসএম আয়ুব আলী, বিজয় রায়, ইউপি সদস্য আক্তার হোসেন গাইন, আ. মোমিন, এসএম আয়ুব আলী, নাছিমা বেগম, রমেশ বর্মন, গাউস সরদার, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আতাউল্লাহ, ফয়সাল আলম,আকরাম হোসেন এনামূল হক, ইমরান হোসেন, সুব্রত দত্ত, সুমিত দেবনাথ, তাপস সরকার, আ. কালাম, নাহিদ মল্লিক, মনিরা, রুবাইয়া, আ'লীগ নেতা শফি  বিশ্বাস, জীবন কিশোর রায়,  প্রধান শিক্ষক সুব্রত সানা,দীপঙ্কর সরকার, কৃষক কল্যাণ রায়, জ্যোতিকা রায়, মলয় মন্ডল, সাবেক ছাত্রনেতা মৃনাল কান্তি বাছাড়, হামিম সানা, ফয়সাল, সুমন সহ অনেকে।

   


পাঠকের মন্তব্য