ভূরুঙ্গামারীতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর প্রতিবাদ

সেনা সদস্যকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর প্রতিবাদ

সেনা সদস্যকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর প্রতিবাদ

কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় মাদকের মুলহোতা পাভেলের অপরাধ লুকাতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মোঃ শফিকুল ইসলামকে মাদক মামলায় পরিকল্পিতভাবে আসামী করায় ওসি ও তদন্ত ওসির অপসারণ ও অবিলম্বে সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা হতে তাকে অব্যাহতির দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধন করেন। 

গত বুধবার (১২ জুন) বিকালে উপজেলার জয়মনিরহাট বাজার ও আল মদিনাতুল হিজবুল কুরআন মাদ্রাসার প্রাঙ্গণে এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

আব্দুল আজিজ  বলেন, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের ভূরুঙ্গামারী এজেন্ট পাভেল এর বাড়ি থেকে গত শনিবার (৮ জুন) বিকালে অভিযান চালিয়ে ১৬০ পিস ফেন্সিডিলের সাথে ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে পুলিশ৷

গোপন সুত্রে জানা যায়, মাদক উদ্ধার অভিযানের সময় ঐ বাসার মালিক পাভেলকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ। পাভেলকে গ্রেফতার না করে শফিকুলকে ঐ মাদক মামলায় ২নং আসামি করে ফাঁসিয়ে দেয় ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি ও তদন্ত ওসি।

মানববনন্ধনে  অংশগ্রহণকারী  আব্দুল আজিজ, নুর আলমসহ আরো অনেকেই থানার ওসি রুহুল আমিন ও তদন্ত ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন এর অপসারণ ও অবিলম্বে তদন্ত সাপেক্ষে শফিকুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা হতে তাকে অব্যাহতির জন্য তারা জোড়ালো দাবি জানান। 

নুর আলম বলেন, মাদক ব্যবসায়ী পাভেলকে গ্রেফতার না করে উল্টো শফিকুলকে মাদক মামলায় ২নং আসামি করে ফাঁসিয়ে দেয় পুলিশ।

অন্যদিকে,  ঐ মামলার জব্দকৃত মাদক উদ্ধারের দ্বিতীয় অভিযানে পাভেলের স্ত্রীর কাছ থেকে চাবি সংগ্রহ করে বাসার রিং স্লাপ এর ভিতর হতে ২০ কেজি গাঁজা ও বাসায় রাখা ৬০ পিস ফেন্সিডিল উদ্ধার করে পুলিশ।

অভিযানে পাভেলের স্ত্রীকে কাছে পেয়েও এই মামলায় তাকে আটক করিনি থানা পুলিশ। ওসি ও তদন্ত ওসির যোগসাজশে শফিকুলকে আসামি করে ঐ মামলায় তাকে আটক দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠায়।

   


পাঠকের মন্তব্য