দুমকিতে চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে ভিজিএফ'র চাল জব্দ

চেয়ারম্যান সৈয়দ গোলাম মর্তুজা শুক্কুর মিয়া

চেয়ারম্যান সৈয়দ গোলাম মর্তুজা শুক্কুর মিয়া

পটুয়াখালী, ২৯ জুন ২০২৪; পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলায় একটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে প্রায় ১৭ টন ভিজিএফের চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। জব্দ করা চালগুলি উপজেলার পেশাদার জেলেদের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল, কিন্তু চেয়ারম্যান সৈয়দ গোলাম মর্তুজা শুক্কুর মিয়া সেগুলি তার ব্যক্তিগত বাড়িতে মজুদ করে রেখেছিলেন।

ঘটনার বিবরণ

শনিবার রাতে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিন চেয়ারম্যানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এই বিপুল পরিমাণ চাল জব্দ করেন। এই চালগুলো মূলত সরকারের খাদ্য গুদামে মজুদ থাকার কথা ছিল। এর পরও, সাময়িক সংরক্ষণের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের গুদামে রাখতে হতো। কিন্তু কোনোভাবেই ব্যক্তিগত বাড়িতে এই চাল রাখার সুযোগ নেই বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

চেয়ারম্যানের বক্তব্য

চেয়ারম্যান গোলাম মর্তুজা শুক্কুর মিয়া অভিযোগ স্বীকার করে জানিয়েছেন, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন দূরে হওয়ায় তার এলাকার জেলেদের মধ্যে বিতরণের জন্য এই চাল তার বাড়িতে রেখেছিলেন। তবে প্রশাসন এই বক্তব্যকে মেনে নেয়নি এবং আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের পরিকল্পনা করছে।

প্রশাসনিক প্রতিক্রিয়া

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিন বলেন, "সরকারি সম্পদ ব্যক্তিগত ভাবে মজুদ করা আইনত অপরাধ। আমরা এ ব্যাপারে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।"

সমাজের প্রতিক্রিয়া

এ ঘটনায় এলাকাবাসী এবং পেশাদার জেলেদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা আশা করছেন যে প্রশাসন দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে এ ধরনের অনৈতিক কাজ বন্ধ করবে এবং অভিযুক্তদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করবে।

এই ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতা এবং কঠোর পদক্ষেপ সাধারণ মানুষের মধ্যে আশার সঞ্চার করেছে। ভবিষ্যতে এমন অন্যায় কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে প্রশাসনের দৃঢ় অবস্থান খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন এলাকাবাসী।

এ ঘটনাটি প্রমাণ করে যে, প্রশাসনের তৎপরতা এবং জনগণের সচেতনতা একসঙ্গে কাজ করলে দুর্নীতি এবং অনৈতিক কাজ বন্ধ করা সম্ভব। এটি একটি সতর্কবার্তা হিসেবে কাজ করবে যাতে ভবিষ্যতে কেউ সরকারি সম্পদ ব্যক্তিগতভাবে মজুদ করার সাহস না পায়।

   


পাঠকের মন্তব্য