বিএনপি-জামাতের মতো অপশক্তিকে প্রতিহত করবে যুবলীগ

অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষকী (প্লাটিনাম জয়ন্তী) উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রমকে আরও গতিশীল ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশের নির্দেশে আজ ১ জুলাই, বিকাল ৩টায়, ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ২য় তলায়, ঢাকা জেলা যুবলীগের উদ্যোগে কর্মীসভার মাধ্যমে প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত। উক্ত কর্মী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল এমপি, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সুব্রত পাল-যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, আবু মনির মোঃ শহিদুল হক চৌধুরী রাসেল-সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, জয়দেব নন্দী-প্রচার সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, এন আই আহমেদ সৈকত- উপ-তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সভাপতিত্ব করেন-মিজানুর রহমান (জিএস মিজান)-আহ্বায়ক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা জেলা শাখা। সঞ্চালনা করেন- মাসুদ আহমেদ-যুগ্ম-আহ্বায়ক, হাজী এইচ এম সেলিম-যুগ্ম-আহ্বায়ক, মোঃ এরফান উদ্দিন- যুগ্ম-আহ্বায়ক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা জেলা শাখা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি বলেন-আজকে ঢাকা জেলা যুবলীগ সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু করেছে, অত্যন্ত ভালো একটি পদক্ষেপ। শহীদ শেখ ফজললু হক মণি'র সুযোগ্য সন্তান শেখ ফজলে শামস্ পরশ যুবলীগের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে যুবলীগ একটি আদর্শিক সংগঠন হিসেবে, সত্যিকার অর্থে শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত ভ্যানগার্ড হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন- নতুন যুব নেতৃত্ব অবশ্যই আসতে হবে, সেই নতুন নেতৃত্বকে প্রতিষ্ঠিত হয়ে, চরিত্রবান হয়ে, আদর্শিক হয়ে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে নতুন নেতৃত্বকে যুবলীগে আনতে হবে। আমি বিশ্বাস করি উক্ত কাজটিই যুবলীগের নেতৃবৃন্দ করবেন। তিনি বলেন-উক্ত প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে যুবলীগের চেয়ারম্যান এবং সাধারণ সম্পাদকের পরশ-নিখিলের মত আদর্শিক কর্মী বাহিনী যুবলীগে গড়ে উঠবে। বিভিন্নভাবে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি, রাজাকার-আলবদররা যখন যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশে যুব সমাজকে ভুল পথে ধাবিত করেছিল  সেই যুবসমাজকে সংগঠিত করে দেশ উন্নয়নের কাজে লিপ্ত করার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মণি ভাইকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন একটি যুব সংগঠন গড়ে তুলতে। আর সেই দায়িত্ব শহীদ শেখ ফজলুল হক মণি সঠিকভাবে পালন করেছিলেন বলেই আজকের যুবলীগ একটি সুসংগঠিত যুব সংগঠন। তিনি বলেন-আজকে বাংলাদেশ যখন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে তখন মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি, জামাত-বিএনপি গভীরভাবে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তাই যুবলীগের নেতা-কর্মীদের বলবো আপনারা সর্বদা সজাগ থাকবেন যেন এই অপশক্তি কোনভাবে মাথাচারা দিয়ে উঠতে না পারে, তাদেরকে রাজপথেই প্রতিহত করে বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরও শক্তিশালী করবো আমরা।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন-আমরা যদি এই সদস্য সংগ্রহ কাজটি সঠিকভাবে করি তাহলে আমি বিশ্বাস করি ঢাকা জেলার কোন অঞ্চলেই যুবলীগের কর্মী বিহীন থাকবে না। আমরা যারা আওয়ামী লীগের মিছিল-মিটিং করি, আন্দোলন-সংগ্রাম করি, যারা আওয়ামী পরিবারের সন্তান, মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি, দেশকে যারা ভালোবাসে শুধু মাত্র তাদেরকেই আমরা যুবলীগের প্রাথমিক সদস্য করবো। তিনি আরও বলেন-আপনারা লক্ষ্য করে দেখবেন দেশবিরোধী শক্তি, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি, মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে যারা অবস্থান গ্রহণ করেছিলেন, যারা ৩০ লক্ষ শহীদ এবং ২ লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রম নিয়ে ছিনিমিনি খেললেন সেই বিএনপি-জামাতের কোন লোকজন যেন যুবলীগের পতাকা তলে আসতে না পারে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা জেলা শাখার অন্তর্গত সকল উপজেলা-পৌরসভা ও ওয়ার্ড যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

   


পাঠকের মন্তব্য