অভিমানে পাইকগাছায় প্রেমিক জুটির মর্মান্তিক মৃত্যু

প্রেমিক জুটির মর্মান্তিক মৃত্যু

প্রেমিক জুটির মর্মান্তিক মৃত্যু

পাইকগাছায় এইচএসসি পরীক্ষার্থী প্রেমিক যুগল আত্মহনন করে ভালোবাসার দৃষ্টান্ত রেখে গেলেন।  বুধবার সন্ধ্যায় ও তার পরেই উপজেলার গড়ইখালীতে পৃথক ভাবে প্রেমিক জুটির মর্মান্তিক মৃত্যু'র ঘটনা ঘটলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। নিহত দু'জনেই গড়ইখালী কলেজের চলতি এইচএসসির পরীক্ষার্থী ছিল। পুলিশ দু'টি মৃতদেহ উদ্ধার করে পৃথক ভাবে মর্গে পাঠিয়েছেন। মর্মান্তিক এ ঘটনা বড়ই বেদনার, মেনে নেয়া যায়না।

জানাগেছে, নিহত কলেজ ছাত্রী প্রিয়াংকার অসম্মতিতে অন্যত্র বিয়ের কথা-বার্তা চলছিল। এ নিয়ে তার সাথে  প্রেমিক ব্রজ'র সাথে মান-অভিমান চলছিল। বুধবার সন্ধ্যার পূর্বে প্রেমিকা প্রিয়াংকা তার প্রেমিক ব্রজ'র মোবাইলে আত্মহত্যার শেষ ম্যাসেজ পাঠায়।

 নিহতের স্বজন ও থানা পুলিশ জানান, বুধবার সন্ধ্যার পূর্বে গড়ইখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ বাইনবাড়ীয়ার পরিতোষ মন্ডল ও তার স্ত্রী বিলে গরু আনতে যায়। এ ফাঁকে এ দম্পতির মেয়ে এইচএসসি পরীক্ষার্থী প্রিয়াংকা মন্ডল বসত ঘরের আড়ায় গঁলায় রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন।

সন্ধ্যার পরেই প্রেমিকার আত্মহত্যার খবরটি ছড়িয়ে পড়লে প্রেমিক ব্রজ মন্ডল শেষ পর্যন্ত বাড়ীর পিছনের শিরিশ গাছে গঁলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেন! নিহত ব্রজ গড়ইখালীর হোগলারচকে মামার বাড়ী থেকে লেখাপড়া করত। সে কয়রা উপজেলার মহেশ্বরীপুরের নোয়ানী গ্রামের জয়দেব মন্ডলের ছেলে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে থানা অফিসার ইনচার্জ( ওসি) মো. ওবাইদুর রহমান জানান, প্রেম ঘটিত মান-অভিমানে দু'পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরোও বলেন, নিহত প্রিয়াংকার লাশের সুরোতহাল করাকালে রাত সাড়ে ১০টার দিকে খবর পাই ব্রজ মন্ডলও গলায় রশিতে আত্মহত্যা করেছেন। 

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত হতভাগ্য প্রেমিক যুগলের খুমেকে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। পৃথক দুটি অপমৃত্যু মামলাও হয়েছে।

   


পাঠকের মন্তব্য