পিএসসি প্রশ্ন ফাঁস কেলেঙ্কারিতে ১০ জন কারাগারে 

বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি)

বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি)

বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি) মধ্যে দুর্নীতির বিরুদ্ধে একটি গুরুত্বপূর্ণ অভিযানে, গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার একটি আদালত প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে দুই উপ-পরিচালক, একজন সহকারী পরিচালক এবং আরও সাতজনকে কারাগারে প্রেরণ করেছে। 

অভিযুক্তদের মধ্যে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা

কারাবন্দি পিএসসি কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন উপ-পরিচালক মোঃ আবু জাফর ও মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এবং সহকারী পরিচালক মোঃ আলমগীর কবির। এই কর্মকর্তাদের আগের দিন আদালতে হাজির করা হয়েছিল, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ তাদের আটক রাখার অনুরোধ করেছিল। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম তাহমিনা হক তাদের আটকের আদেশ দেন।

কারাগারে পাঠানো অন্য আসামিরা হলেন-

  1. সৈয়দ সোহানুর রহমান সিয়াম, পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ আবেদ আলীর ছেলে
  2. সাবেক সেনা সদস্য নোমান সিদ্দিকী
  3. অডিটর প্রিয়নাথ রায়
  4. ব্যবসায়ী মোঃ জাহিদুল ইসলাম
  5. নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসের নিরাপত্তা প্রহরী শাহাদাত হোসেন মো
  6. ঢাকা ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তা মোঃ মামুনুর রশীদ
  7. শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মেডিকেল টেকনিশিয়ান নিয়ামুন হাসান

বিবৃতি এবং সাক্ষ্য

সৈয়দ আবেদ আলীসহ সাতজন ব্যক্তি দায়িত্ব স্বীকার করে বিবৃতি দিতে সম্মত হন। সিআইডির অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার জুয়েল চাকমা তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করার অনুরোধ করেন এবং বর্তমানে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এসব জবানবন্দি রেকর্ড করছেন।

সাক্ষ্যদানকারী সাত ব্যক্তি হলেন- 

  1. সৈয়দ আবেদ আলী, পিএসসি চেয়ারম্যানের সাবেক চালক
  2. অফিস সহকারী খলিলুর রহমান মো
  3. অফিস সহকারী (প্রেষণ) সাজেদুল ইসলাম
  4. ঢাবির সাবেক ছাত্র ও বর্তমান মিরপুরের ব্যবসায়ী মোঃ আবু সোলায়মান সোহেল
  5. ব্যবসায়ী ভাই সাখাওয়াত হোসেন ও সায়েম হোসেন
  6. বেকার যুবক লিটন সরকার

মামলার পটভূমি 

একটি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল দ্বারা প্রচারিত পিএসসির বিরুদ্ধে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের পরে সৈয়দ আবেদ আলীর ফেসবুক পোস্টগুলি ভাইরাল হওয়ার পরে কেলেঙ্কারিটি উম্মোচন হয়। সোমবার রাতে পল্টন থানায় বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হলে ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।  

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের তালিকা

  1. উপ-পরিচালক মোঃ আবু জাফর ও মোঃ জাহাঙ্গীর আলম
  2. সহকারী পরিচালক মোঃ আলমগীর কবির ও মোঃ শামসুল আলম
  3. অফিস সহকারী খলিলুর রহমান মো
  4. অফিস সহকারী (প্রেষণ) সাজেদুল ইসলাম
  5. ঢাবির সাবেক ছাত্র ও বর্তমান মিরপুরের ব্যবসায়ী মোঃ আবু সোলায়মান সোহেল
  6. অডিটর প্রিয়নাথ রায়
  7. ব্যবসায়ী মোঃ জাহিদুল ইসলাম
  8. নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসের নিরাপত্তা প্রহরী শাহাদাত হোসেন মো
  9. ঢাকা ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তা মোঃ মামুনুর রশীদ
  10. শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মেডিকেল টেকনিশিয়ান নিয়ামুন হাসান
  11. ব্যবসায়ী ভাই সাখাওয়াত হোসেন ও সায়েম হোসেন
  12. বেকার যুবক লিটন সরকার

পাবলিক প্রতিক্রিয়া

নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়ায় সৈয়দ আবেদ আলীর যথেষ্ট সম্পদের তথ্য শেয়ার করার সাথে এই কেলেঙ্কারিতে জনসাধারণের প্রতিক্রিয়া তীব্র হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় তার জড়িত থাকার বিষয়টি ব্যাপক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে এবং পিএসসির সততা নিশ্চিত করতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে।

পিএসসি প্রশ্ন ফাঁস কেলেঙ্কারি বাংলাদেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের প্রতি জনগণের আস্থা নাড়িয়ে দিয়েছে। গ্রেপ্তার এবং চলমান তদন্ত দুর্নীতির মূলোৎপাটন এবং সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা প্রক্রিয়ার প্রতি বিশ্বাস পুনরুদ্ধারে সরকারের প্রতিশ্রুতিকে জোরদার করে। তদন্ত এগিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে, বিশ্বাসের এই গুরুতর লঙ্ঘনের সাথে জড়িত নেটওয়ার্কের সম্পূর্ণ পরিমাণের উপর আলোকপাত করে আরও বিশদ বিবরণ বেরিয়ে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

   


পাঠকের মন্তব্য