শর্তহীনভাবে আটক পাইলট'কে ফেরত চায় ভারত

কোনও শর্ত নয়। অবিলম্বে পাইলট অভিনন্দনকে ফেরাতে হবে। পাকিস্তানকে এমনই বার্তা দিল ভারত। স্পষ্ট বলা হল, পাকিস্তান যেন ভারতীয় পাইলটকে কোনও ‘কার্ড’ হিসেবে ব্যবহার না করে। বৃহস্পতিবার পাক পরাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, ‘যদি সংঘর্ষ বন্ধ হয় তাহলে আমরা পাইলট অভিনন্দনকে ফেরাতে রাজি।’ কিন্তু ভারত কোনও শর্ত মানতে রাজি নয়। ভারত চাইছে, কোনও শর্ত ছাড়াই দ্রুত পাকিস্তান দিরিয়ে দিক পাইলটকে।

ভারত সরকার কোনও কনস্যুলার অ্যাকসেস চায়নি পাকিস্তানের কাছে। ভারত স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে যে, পাইলটের যদি কোনও ক্ষতি হয়, তাহলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। পাক পরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন যে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা বলার জন্য প্রস্তুত। ফোনে কথা বলতে ইমরান প্রস্তুত বলেই জানিয়েছেন কুরেশি।

বর্তমানে এক বিশেষ সম্মলেনে যোগ দিতে সৌদি আরবেই রয়েছেন সুষমা স্বরাজ। সেখানে গিয়েছেন পাক পরাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশিও। তিনি সুষমার সঙ্গে কথা বলবেন কিনা, সেবিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে, তিনি বলেন ‘দেখা করা যেতেই পারে। তবে কথা বলার জায়গা এটা নয়।’

এদিকে, এই পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে রয়েছে ওয়াশিটন৷ বুধবার রাতেই ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে কথা হয় মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পিওর৷ জইশ-ই-মহম্মদকে খতম করতে নয়াদিল্লির সব উদ্যোগকে সমর্থন জানিয়েছে আমেরিকা৷

এরপরই রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিশ্রুতির কথা পাকিস্তানকে মনে করিয়ে দেয় ট্রাম্প প্রশাসন৷ কড়া ভাষায় জানিয়ে দিল জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়া বন্ধ করে নিরাপত্তা পরিষদকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করুক ইসলামাবাদ৷ একই সঙ্গে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে দুই দেশকে সামরিক কার্যকলাপে এখানেই দাঁড়ি টানতে বলেছে আমেরিকা৷ 

পাঠকের মন্তব্য