খতম হয়েছে শীর্ষ জঙ্গি নেতা ও কুখ্যাত ডাকাত সর্দার

খতম হয়েছে শীর্ষ জঙ্গি নেতা ও কুখ্যাত ডাকাত সর্দার

খতম হয়েছে শীর্ষ জঙ্গি নেতা ও কুখ্যাত ডাকাত সর্দার

দেশে জোরকদমে চলছে সন্ত্রাসদমন অভিযান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সন্ত্রাসবাদের শিকড় উপড়ে ফেলতে বদ্ধপরিকর দেশ। এবার সিলেটে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে খতম হয়েছে এক শীর্ষ জঙ্গি নেতা ও এক কুখ্যাত ডাকাত সর্দার।  

জানা গিয়েছে, শুক্রবার গভীর রাতে বিশ্বনাথ উপজেলার মরমপুর সুড়িখাল এলাকা এবং গোলাপগঞ্জের কদুপুর এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব ও পুলিশে দু’টি বাহিনী। বিশ্বনাথ থানার আধিকারিক শামিম মুসা সংবাদমাধ্যমকে জানান, গভীর রাতে মরমপুর সুড়ির খাল এলাকার সিলেট-বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কে ডাকাত দলের উপস্থিতির কথা জানতে পেরে অভিযান চালায় পুলিশ। নিরাপত্তারক্ষীদের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালাতে শুরু করে ডাকাতরা। পালটা হামলা চালায় পুলিশ বাহিনী। বেশ কিছুক্ষণ গুলি বিনিময়ের পর ঘটনাস্থল থেকে এক ডাকাতের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন তিন পুলিশকর্মীও।   

এদিকে, সিলেটের গোলাপগঞ্জ কদুপুর এলাকায় একাধিক হত্যা মামলার আসামি ও সন্ত্রাসবাদী আলি হোসেনকে (৪০) গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালায় র‌্যাবের একটি দল। অভিযান চলাকালীন নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় জঙ্গিরা। র‌্যাবের সদস্যরা পালটা গুলি ছুঁড়লে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে আলি হোসেনের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার করে র‌্যাব।   

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ থেকে সন্ত্রাসবাদীদের নির্মূল করতে বদ্ধপরিকর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারই নির্দেশে সমস্ত দেশজুড়ে চলছে জেহাদি ও মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযান। গত কয়েক মাসে পুলিশের জালে পড়েছে একাধিক জঙ্গি। নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে সংঘর্ষে খতম হয়েছে একাধিক কুখ্যাত জঙ্গিনেতা। ফলে কার্যত কোমর ভেঙে গিয়েছে জেহাদি সংগঠনগুলির। সব মিলিয়ে ঢাকার গুলশনে জঙ্গি হামলার পর থেকেই সন্ত্রাসবাদের শিকড় উপড়ে ফেলতে বদ্ধপরিকর সরকার।

পাঠকের মন্তব্য