কোকেন সদৃশ্য নতুন এক ধরনের মাদকের আবির্ভাব

কোকেন সদৃশ্য নতুন এক ধরনের মাদকের আবির্ভাব

কোকেন সদৃশ্য নতুন এক ধরনের মাদকের আবির্ভাব

দেশের মাদক রাজ্যে এমফিটামিন নামে কোকেন সদৃশ্য নতুন এক ধরনের মাদকের আবির্ভাব ঘটেছে। তৈরি পোশাক রপ্তানির আড়ালে পাচার করার সময় গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সাড়ে ১৫ কেজি এমফিটামিন মাদক জব্দ করা হয়েছে। এভিয়েশন সিকিউরিটির সদস্যদের সহযেগিতায় এই মাদক জব্দ করে ঢাকা কাস্টমস হাউজ।

ঢাকা কাস্টমস হাউস সূত্র জানায়, কেরানীগঞ্জের নেপচুন ফ্রেইট লিমিটেড নামে একটি কোম্পানির গার্মেন্ট পণ্যের সঙ্গে এমফিটামিন জাতীয় এই মাদক জব্দ করা হয়। ওই কোম্পানির মালিকের নাম রুবেল হোসেন। ইউনাইটেড ট্রেড নামক একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এই পণ্যগুলো প্যাকেজিং করা হয়।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান জানান, বিমানবন্দরে রপ্তানি কার্গো ভিলেজে ডুয়েল ভিউ স্ক্যানারে নিরাপত্তা তল্লাশি বা স্ক্রিনিংয়ের সময় গার্মেন্ট পণ্যের (জিন্স প্যান্ট) ৩৪০টি কার্টনের মধ্যে ৭টি কার্টনে ১৫ কেজি ৬৫৮ গ্রাম পাউডার জাতীয় পদার্থ পাওয়া যায়। পরে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে পরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়া গেছে এটি প্রথম শ্রেণির মাদক।

মূলত ইয়াবা তৈরির উপাদান দিয়ে কোকেন সদৃশ্য এই মাদক তৈরি করা হয়েছে। হংকং হয়ে অস্ট্রেলিয়াগামী বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তা হংকংয়ে পাঠানোর উদ্দেশ্য ছিলো।

এ বিষয়ে বিমানবন্দর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান জানান।

পাঠকের মন্তব্য