পরীক্ষায় বেশি নম্বরের লোভ দেখিয়ে যৌন প্রস্তাব শিক্ষকের 

পরীক্ষায় বেশি নম্বরের লোভ দেখিয়ে যৌন প্রস্তাব শিক্ষকের 

পরীক্ষায় বেশি নম্বরের লোভ দেখিয়ে যৌন প্রস্তাব শিক্ষকের 

শিক্ষক কিংবা গুরু। শব্দগুলির মধ্যেই লুকিয়ে সম্মান-শ্রদ্ধা। শিষ্যের কাছে গুরুই তার আদর্শ। তিনিই সঠিক ভবিষ্যতের দিশা দেখান। কিন্তু ভারতের রাজস্থানের একটি স্কুলে চোখে পড়ল একেবারে অন্য ছবি। বেশি নম্বর দেওয়ার লোভ দেখিয়ে ছাত্রীদের যৌন চাহিদা মেটানোর প্রস্তাব দিলেন খোদ শিক্ষক !

আলোয়ার থানার পুলিশের দেওয়া এই খবরে শিউরে উঠছেন স্থানীয়রা। অভিযোগ, এক নয়, বহু ছাত্রীকে পরীক্ষায় বেশি নম্বর কিংবা পাশ করিয়ে দেওয়ার কথা বলে তাদের যৌন মিলনের প্রস্তাব দিয়েছেন সরকারি স্কুলের ওই ‘গুণধর’ শিক্ষক দেব প্রকাশ যাদব। তবে শুধু প্রস্তাব দিয়েই ক্ষান্ত থাকেননি তিনি। ছাত্রীদের অভিযোগ, একাধিকবার তাদের আপত্তিকরভাবে ছোঁয়ার চেষ্টাও করেছেন অভিযুক্ত। কিন্তু এতদিন ধরে তারা সে কথা মুখ ফুটে বলার সাহস পায়নি। পাছে তাদের কথা কেউ বিশ্বাস না করে। তবে সম্প্রতি ব্লকের পর্যবেক্ষক স্কুল পরিদর্শনে যেতেই তাঁর সামনে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন নির্যাতিতারা।

আলোয়ার থানার তরফে এক পুলিশ আধিকারিক জানান, ছাত্রীরা অভিযোগ করেছে, অশালীনতার মাত্রা ছাড়িয়েছিলেন ওই শিক্ষক। অনেকের শরীরে আপত্তিকরভাবে হাত দিতেন। তার সঙ্গে যৌন মিলনে লিপ্ত হওয়ার জন্য জোর করতেন। তাঁর যৌন চাহিদা না মেটালে পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়ার ভয়ও দেখানো হত ছাত্রীদের। তাদের অভিযোগ শুনে পুলিশকে খবর দেন ব্লক পর্যবেক্ষকই। তাঁর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতেই দেব প্রকাশকে শুক্রবার সন্ধেয় গ্রেপ্তার করা হয়। বছর পঁয়তাল্লিশের ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারা এবং POCSO আইনেও মামলা রুজু হয়। শনিবার তাঁকে আদালতে পেশ করা হলে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

ঠিক কবে থেকে কতজন ছাত্রীর সঙ্গে এমন অশালীন আচরণ করছিলেন অভিযুক্ত, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পুলিশি তৎপরতায় শিক্ষকের হাত থেকে রক্ষা পেয়ে আপাতত স্বস্তিতে ছাত্রীরা।

পাঠকের মন্তব্য