পাপুলের পর এবার এমপি পদ হারাতে পারেন হাজী সেলিম ! 

পাপুলের পর এবার এমপি পদ হারাতে পারেন হাজী সেলিম ! 

পাপুলের পর এবার এমপি পদ হারাতে পারেন হাজী সেলিম ! 

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের পর এবার সংসদ সদস্যের পদ হারাতে পারেন প্রভাবশালী সংসদ সদস্য হাজী সেলিম। অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় চূড়ান্তভাবে দণ্ডাদেশ প্রাপ্ত হওয়ায় তিনি এমপি পদে আইনত আর থাকতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংবিধানের ৬৬ অণুচ্ছেদে বলা আছে- কোন ব্যক্তি সংসদের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার এবং এমপি থাকার যোগ্য হবেন না; যদি (ক) কোন উপযুক্ত আদালতে তাঁকে অপ্রকৃতিস্থ  ঘোষণা করে, (খ) তিনি দেউলিয়া ঘোষিত হওয়ার পর দায় হতে অব্যাহতি না পেয়ে থাকেন, (গ) তিনি যদি কোন বিদেশি রাষ্ট্রের নাগরিকত্ব অর্জন করেন, কিংবা কোনো বিদেশি রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা বা স্বীকার করেন, (ঘ) তিনি নৈতিক স্খলনজনিত কোনো ফৌজদারি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে অন্যূন দুই বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন এবং মুক্তির পর পাঁচ বছর অতিবাহিত না হয়ে থাকে।’

সংবিধানের ৬৬(২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নৈতিক স্খলনজনিত কোন ফৌজদারি অপরাধে দুই বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলে মুক্তি পাওয়ার পর পাঁচ বছর পর্যন্ত তিনি আর সংসদ সদস্য হওয়ার যোগ্য বিবেচিত হন না। সেই হিসেবে হাজী সেলিম এর পদে থাকার আর সুযোগ রইলো না। 

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদুক) আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জানিয়েছেন, হাজী সেলিম এর দণ্ডাদেশ প্রাপ্তি বিষয়টি কারো মাধ্যমে সংসদকে অবহিত করতে হবে। এরপর স্পিকার রায়ের কপি পর্যালোচনা করে তাঁর সংসদ সদস্য পদ থাকা আর না থাকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন। 

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বিরুদ্ধে লালাবাগ থানায় অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। সেই মামলায় ২০০৭ সালের ২৭ এপ্রিল তাঁকে ১৩ বছরের কারাদন্ডাদেশ দেন বিচারিক আদালত। এরপর ২০০৯ সালের ২৫ অক্টোবর হাজী সেলিম বিচারিক আদালতে রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন। পরে ২০১১ সালের ২ জানুয়ারি হাইকোর্ট এক রায়ে হাজী সেলিমের সাজা বাতিল করেন।  

পাঠকের মন্তব্য