মাদ্রাসায় লেপ-তোশকের স্তূপের নিচ থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

মাদ্রাসায় লেপ-তোশকের স্তূপের নিচ থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

মাদ্রাসায় লেপ-তোশকের স্তূপের নিচ থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

কুমিল্লা নগরীর একটি মাদ্রাসা লেপ-তোশকের স্তূপের নিচ থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার হয়েছেন। রোববার রাতে নগরীর ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাংরাইশ এলাকার পাক পাঞ্জাতন মুজিবীয় সুন্নিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা থেকে লাশটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

সোমবার ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

নিহত সাব্বির হোসেন সজিব (৭) উপজলার জগন্নাথপুর মন্দির এলাকার মৃত আলমগীরের ছেলে। শিক্ষকরা তাকে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন শিশুটির মা ফুলমতি বেগম। 

এই ঘটনায় সোমবার ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক জোনাইদ আহমেদ ও শিক্ষক আল-আমিনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ফুলমতী। এরপর তাদের গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত রিমান্ড শুনানি না করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রোববার সন্ধ্যায় ছেলের জন্য খাবার নিয়ে মাদ্রাসায় যান। তখন সজীবকে না পেয়ে জিজ্ঞেস করলে প্রধান শিক্ষক জোনাইদ বলেন- 'সজীবকে ছুটি দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়েছেন তিনি।' 

পরে মাদ্রাসায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন তিনি। এক পর্যায়ে রাত ৯টার দিকে আবাসিক ছাত্রদের রাখা লেপ-তোশকের স্তূপে সজীবের লাশ পাওয়া যায়। তিনি অভিযোগ করেন, আসামিরা তার ছেলেকে হত্যার পর লাশ লুকিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে চেয়েছিলেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও কোতোয়ালি থানার চকবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জাকির হোসেন বলেন, কী কারণে শিশু সজীবকে হত্যা করা হয়েছে তা জানা যায়নি। তদন্ত ও আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের পর এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।

 

পাঠকের মন্তব্য