বসুন্ধরার এমডি আনভীরের দেশত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞা

বসুন্ধরার এমডি আনভীরের দেশত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞা

বসুন্ধরার এমডি আনভীরের দেশত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞা

রাজধানীর গুলশানে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়া (২১) মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার প্রধান ও একমাত্র আসামী বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবাহান আনভীরের বিদেশ যাত্রার ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে পুলিশের আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানিয়েছেন, যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে অনুমতি চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি অভিবাসন কর্তৃপক্ষকেও সায়েম সোবহান যাতে দেশ ছাড়তে না পারেন, সেই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়েছে। 

রাজধানীর গুলশানে বিলাশবহুল একটা ফ্ল্যাট থেকে এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই তরুণীর নাম মোসারাত জাহান মুনিয়া (২১)। ময়নাতদেন্তর জন্য পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। 

আমরা ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ জব্দ করেছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় কেউ জড়িত কি না তাও দেখা হচ্ছে।’ 

এদিকে মামলার বাদীর বরাত দিয়ে গুলশান জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) নাজমুল হাসান ফিরোজ বলেন, ‘মোসারাত জাহান মুনিয়ার সঙ্গে দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গুলশানের একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে মুনিয়া সেখানে একাই থাকতেন। বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর ওই বাসায় নিয়মিত যাতায়াত করতেন।’

পাঠকের মন্তব্য