গ্রাম পুলিশ রউফ হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

গ্রাম পুলিশ রউফ হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

গ্রাম পুলিশ রউফ হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

দেশব্যাপী কর্মবিরতির হুশিয়ারি 

গ্রাম পুলিশ আব্দুর রউফ হত্যাকারীদের দ্রততম সময়ের মধ্যে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসুচী পালিত হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুরে  সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ তাহিরপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসুচী পালিত হয়।

উপজেলার সাত ইউনিয়নের সকল গ্রাম পুলিশ সদস্য মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

গ্রাম পুলিশ তাহিরপুর উপজেলা শাখার সভাপতি আবুল কালামের সভাপতিত্বে মানবন্ধন চলাকালে প্রতিবাদ সমাবেশে গ্রাম পুলিশ সদস্যরা বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন,উপজেলার উওর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদে কর্মরত গ্রাম পুলিশ আবদুর রউফ বোরোখাড়া নিজ গ্রামে ব্যাটারি চুরিতে বাধা দিতে ও চোরদের ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে খুন হন গত ৬ মে বৃহস্পতিবার ভোররাতে।

এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের বোন জাহানারা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা আসামি করে মামলা দায়েরের পর পুলিশ ও র‌্যাব দু,দফায় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বোরোখাড়া গ্রামের বাসিন্দা শবদর আলীর নাতি এনামুল হক ওরফে শাবনুর সহ তিন আসামিকে গ্রেফতার করলেও হত্যাকান্ডের মূল হোতা ঘাতক হলহলিয়া চরগাঁও গ্রামের আকবর আলীর ছেলে সোহেল আজো অধরাই রয়ে গেছে।

গ্রাম পুলিশ সদস্যরা অবিলম্ভে ঘাতক সোহলকে গ্রেফতার করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সকল আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান অন্যতায় কর্মবিরতি সহ  দেশব্যাপী সকল গ্রাম পুলিশদের নিয়ে বৃহওর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে বলেও হুশিয়ারি প্রদান করেন। 

সমাবেশে গ্রাম পুলিশের সদস্যরা হতাশা প্রকাশ করে বলেন, যত সামান্য বেতনে চাকুরিরত গ্রাম পুলিশ রউফ চোর ধরতে ও চুরিতে বাধা দিতে গিয়ে দুই নাবালক শিশু সন্তান রেখে নির্মমভাবে হত্যাকান্ডের শিকার হলেও ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলে উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশ কিংবা জনপ্রতিনিধি গণের কেউ শোকাহত পরিবারের পাশে গিয়ে সমবেদনা ও সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসেননি।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গ্রাম পুলিশ তাহিরপুর উপজেলা শাখার সহ সভাপতি গোলাপ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ আলী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সাইকুল ইসলাম, আব্দুল আজিজ, নিছেল মিয়া, চঞ্চলা রাণী দাস,শেফালী রাণী সরকার প্রমুখ।

পাঠকের মন্তব্য