২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য

ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আকারের বাজেট প্রস্তাব 

ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আকারের বাজেট প্রস্তাব 

ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আকারের বাজেট প্রস্তাব 

বিশ্বব্যাপী মহামারী পরিস্থিতির মাঝে বাংলাদেশ করোনা মোকাবিলায় ১০ হাজার কোটি টাকার থোক বরাদ্দ রেখে ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ তিন হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব জাতীয় সংসদে পেশ করা হয়েছে। গত বছরের চেয়ে এবার বাজেটের ব্যয় ১২ ভাগ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে।  

স্পিকার ড. শিরীন শারমিনের সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদের অধিবেশনে আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনা করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এই সময় সংসদ নেতা অ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে উপস্থিত ছিলেন। 

এবারের বাজেটে মোট ঘাটতি ধরা হয়েছে দুই লাখ ১৪ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এটি জিডিপির ৬.২ শতাংশ। এই হার গত বাজেটে ছিল ৬.১ শতাংশ। বাজেটের এই ঘাটতি মেটাতে অভ্যন্তরীণ উৎস হতে এক লাখ ১৩ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে। এ ছাড়া বৈদেশিক উৎস হতে এক লাখ এক হাজার ২২৮ কোটি টাকা সংগ্রহের কথা বলা হয়েছে। 

এবারের বাজেট অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের দায়িত্বকালের তৃতীয় বাজেট, আওয়ামী লীগ সরকারের ২১তম এবং বাংলাদেশের ৫০তম বাজেট। আর এটি হবে করোনাকালীন দ্বিতীয় বাজেট অধিবেশন। এবারও বাজেট অধিবেশনের মেয়াদ স্বল্প সময়ের হওয়ার কথা বলা হয়েছে। আর, সংক্ষিপ্ত আলোচনার পর বাজেট নিয়ম অনুযায়ী ৩০ জুনের মধ্যে পাস করা হবে। 

জাতীয় বাজেট উপস্থাপনার আগে ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন করেন মন্ত্রীসভা। জাতীয় সংসদ ভবনের মন্ত্রী পরিষদ কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয়। 

পাঠকের মন্তব্য