Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ১০:২৭ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
তথ্য প্রযুক্তি খাতে প্রকৃত উন্নয়নের চেয়ে প্রচার বেশি বিএনপি সঙ্গে ঐক্য গড়ে কী পেলেন ড. কামাল, হারালেন পুরোনো ও পরীক্ষিত বন্ধুদের সিএমএইচে ভর্তি প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম  ‘#মি টু’ আন্দোলনের মুখে শেষ পর্যন্ত পদত্যাগে বাধ্য হলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী  শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে দুই নারী জঙ্গির আত্মসমর্পণ, অপারেশন সমাপ্তি ঘোষণা বঙ্গবন্ধু শহীদ ছোট ছেলে শেখ রাসেলের ৫৪তম জন্মদিন, আগামীকাল | প্রজন্মকণ্ঠ জাতীয় ঐক্যকে ‘জগাখিচুড়ি’ বললেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নরসিংদীর মাধবদীতে জঙ্গি আস্তানা নিলুফা ভিলা থেকে দুই জঙ্গির আত্মসমর্পণ  আত্মসমর্পণের আহ্বান : সাড়া দিচ্ছে না 'নিলুফা ভিলা'য় অবস্থানরত জঙ্গিরা, যোগাযোগের চেষ্টা চলছে  বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচকে এক ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ । প্রজন্মকণ্ঠ 

চ্যানেল 24 এর কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স এডিটর সাংবাদিক রাহুল রাহা

আজকের গণমাধ্যমের বাস্তবতা- এটাকে তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লব বলা যায় : সাংবাদিক রাহুল রাহা   


সাক্ষাৎকার  –ওয়াহিদুজ্জামান ( খুলনা জেলা সংবাদদাতা)    

আপডেট সময়: ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ৭:৪৬ পিএম:
আজকের গণমাধ্যমের বাস্তবতা- এটাকে তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লব বলা যায় : সাংবাদিক রাহুল রাহা   

সাক্ষাৎকার মুলক প্রতিবেদন :  বাংলাদেশর ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার রেনেসা বলা যায় নব্বই দশককে । তখন হাতে গোনা কয়েকটি প্রাইভেট টিভি চ্যানেল গণমাধ্যমে সংযুক্ত হয়েছে । এর পূর্বে আমরা সাধারন দর্শক বাংলাদেশ টেলিভিশন ছাড়া বেশিরভাগ দর্শকই  ভারতীয় চ্যানেল গুলোর ওপর নির্ভরশীল ছিলাম । তথ্য প্রযুক্তির অগ্রসারতায় বাংলাদেশও সহযাত্রী হয়েছে ।

আর এটার মুল কারন হিসাবে বিবেচিত- এদেশের জনসাধারণের মাঝে যোগাযোগের মাত্রা বাড়ানোর স্পৃহা । সেক্ষেত্রে বিনোদন বলি কিংবা সংবাদের  আধুনিকতা বলি -সর্বত্র একটা পরিবর্তনের উপলব্দতা আজকের গনমাধ্যমের  বৈপ্লবিক পরিবর্তন । তাই একুশ শতকে দাড়িয়ে এমন ভাবনায় আমাদের মাঝে তৃপ্তির ঢেঁকুর আসা- এতোটুকু অতুক্তি নয় ! 

পৃথিবীতে মানুষের  মনস্ততাত্তবিক সংস্কৃতি ক্রমে নতুনত্বে ধাবিত হচ্ছে ।তাই বিগত দশ বছরের বাংলাদেশ আর আজকের বাংলাদেশ এক নয়। এটাই সময়ের সাথে মানুষের জীবনবোধের বাস্তবতা । 

এসব সময়োচিত বিষয় নিয়ে বাংলাদেশের বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সুচনা কাল হতে মূলধারার  সাংবাদিক রাহুল রাহার সাথে কথা হয়  ।যাকে আমরা ইলেকট্রনিক মিডিয়ার একজন ডাকসাইট সাংবাদিক হিসাবে চিনি ।বর্তমানে তিনি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল 24 এর কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স এডিটর হিসাবে কর্মরত আছেন ।তার সাক্ষাৎকারের চৌম্বুক অংশ তুলে ধরা হল । 

প্রজন্মকণ্ঠ প্রতিনিধি : তথ্য প্রযুক্তির অগ্রসারতায় গণমাধ্যমে আজকের আমূল পরিবর্তন দৃশ্যমান।সামনের সময়ে এক্ষেত্রে আরও কি জাতীয় পরিবর্তন আসতে  পারে বলে মনে করেন?   

রাহুল রাহাঃ সামনের সময়ে বললে ভুল হবে,এখনই ক্রমে সবকিছু নিউ ফরমেটে চলে যাচ্ছে ।নিউ ফরমেট বলতে-সবকিছু  মোবাইল  ফোনের আওতায় চলে  আসছে । পত্রিকা-টেলিভিশন,অনলাইন সবই  ডিজিটাল ফরমেটে  চলে যাবে ।    

প্রজন্মকণ্ঠ প্রতিনিধি : গণমাধ্যমের এই আমূল পরিবর্তনে প্রিন্ট মিডিয়ায় সার্বিক আবস্থান কেমন হবে  বলে (ব্যক্তিগত ভাবে  ) মনে করেন ?  
 
রাহুল রাহাঃ সামনের  দিনে গণমাধ্যম পাল্টে যাওয়ার সাথে প্রিন্ট মিডিয়ায় যে এর  প্রভাব পড়বে না, তা নয়। তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লবে ইতোমধ্যে ইউরুপ-আমেরিকার বহু পত্রিকা  বন্ধ করে দিয়েছে। সে সব পত্রিকা এখন ফরমেট বদলে অনলাইন ভার্সনে  চলে যাচ্ছে ।
ইউটিউব ,ফেসবুক, টুইটার ,ইন্সট্রগ্রাম অর্থাৎ   সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিতর গণমাধ্যম চলে যাচ্ছে ।  সে সব দেশে বহু পত্রিকা এখন  আর কাগজে বের হয় না ।এটাই আজকের গনমাধ্যমের  প্রেক্ষাপট । 

প্রজন্মকণ্ঠ প্রতিনিধি : বাংলাদেশের প্রিন্ট মিডিয়ার বাস্তবিকতা সম্পর্কে আপনার অভিমত কি জাতীয় ? 
 
রাহুল রাহাঃ বাংলাদেশে প্রিন্ট মিডিয়ার  ভবিষ্যৎ আছে । প্রিন্ট মিডিয়া বেশিরভাগ খবর থাকে বিশ্লেষণ ধর্মী ।খেয়াল করলে দ্যাখা যায়, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার খবর গুলোর আর প্রিন্ট মিডিয়ার খবর  পুরপুরি এক নয়। উদাহারনে  বলা যায়, দ্যাখা গেলো কোন একটা খুনের খবর কে প্রিন্ট মিডিয়া  চেষ্টা করে খুনের  এর কারন গুলো  বিশ্লেষণ করতে। এসব সংবাদে  সামাজিক প্রতিক্রিয়ার ফোকাস থাকে । 

প্রজন্মকণ্ঠ প্রতিনিধি : প্রিন্ট মিডিয়ার চাহিদা হ্রাসে কি গ্রহণযোগ্যতার ঘাটতি হতে পারে?  

রাহুল রাহাঃ প্রিন্ট মিডিয়ার চাহিদা দিন দিন কমে যাচ্ছে...।তবে গ্রহণযোগ্যতার কোন বত্যায় না ঘটলেও অনলাইনের দিকে দিন যত যাচ্ছে , ততই মানুষ ঝুকছে । এখনকার তরুণরা দিনের বেশীর ভাগ সময় অনলাইনে থাকে।

আমেরিকা,ইউরোপ ইন্ডিয়ার  বহু পত্রিকা এখন আর কাগজে বের হয় না, সেগুলো অনলাইন সংস্কারনে  চলে গেছে। আর এটাই হবে গনমাধ্যম হতে সঠিক ভাবে আয়ের পথ ।বর্তমান প্রেক্ষিত হতে একথা বলা যায় -আগামি ১০ বছর পর  বাংলাদেসের গণমাধ্যম পত্রিকা টেলিভিশন রেডিও সকল ফরমেটই  অনলাইনে চলে যাবে ।   

এখন ফেসবুক,ইউটিউব সব কিছু পারচেজ করতে হয়।that is the ultimate place of business— that is the ultimate place  of news- that is ultimate place  of amuagement-that is the ultimate place of accecptance. 

প্রকাশ করা আবশ্যক ,আমেরিকার বিখ্যাত ওয়াল্ড ষ্ট্রীট জার্নাল পত্রিকা বন্ধ হয়ে গেছে ।এখন তারা পুরপুরি অনলাইনে চলে গেছে ।প্রতিদিন  তারা ১৬০০ ভিডিও আপলোড করে ।কারন  পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গার ঘটনা তাদের অনলাইন জার্নালে  কভারেজ দিয়ে থাকে ।  বর্তমানে বাংলাদেশের প্রথম সারির দৈনিক গুলো  ইতিমধ্যে অনলাইন ভার্সনে চলে গেছে।  

প্রজন্মকণ্ঠ প্রতিনিধি : একুশ শতকে অগ্রসরমান পৃথিবীর  সাথে বাংলাদেশ কতটা তাল মিলিয়ে চলতে পারছে বলে সাংবাদিকতার দৃষ্টি হতে  আপনি মূল্যায়ন করেন ? 
 
রাহুল রাহাঃ  বাংলাদেশ  এখন উন্নয়নশীল দেশ  হিসাবে সর্বজনবিদিত।বাংলাদেশ কে পিছিয়ে পড়া দেশ হিসাবে দ্যাখার সুযোগ নাই ।বাংলাদেশের রাস্তায় চলা যায় না   গাড়ির জন্য। এটাও এগিয়ে যাওয়ার একটা প্রতিক হিসাবে দ্যাখা যেতে  পারে ।

বাংলাদেশের মানুষের যে কোন নতুন প্রযুক্তি  গ্রহণের প্রবনতা বিস্ময়কর । এখানে যত দ্রুত মোবাইল  ফোন ,  অনলাইন, ইন্টারনেট,টেলিভিশন ,অন লাইন পত্রিকা বিকশিত হয়েছে যা পৃথিবীর অনেক দেশেই হয়নি । বাংলাদেশে সাড়ে তিন কোটি লোক প্রতিদিন মোবাইল ব্যাবহার করে।যে দেশে দশ কোটি লোক মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে ।পৃথিবীর অনেক দেশেই  তো সাড়ে  তিন কোটি লোকই নাই । ভাবা যায় , প্রতিদিন বিকাশে ১২০০-১৩০০ টাকা লেনদেন হয় ।এসবই আমাদের আজকের বাংলাদেশের সক্ষমতা । আজকের বাংলাদেশের অর্জন ।
 

    

 

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top