Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮ , সময়- ৬:৪০ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
নির্বাচনে জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটবে, আবারও আ'লীগ জোয়ারে ভাসবে : ওবায়দুল কাদের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের পরিদর্শন প্রতিবেদন বস্তুনিষ্ঠ ও সঠিক নয় : বাংলাদেশ ব্যাংক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আওয়ামী লীগের গণসংবর্ধনা আগামীকাল বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নয়াপল্টনে নেতাকর্মীদের জমায়েত প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনা শনিবার, যানবাহন চলাচলে ডিএমপি’র নির্দেশনা রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি নির্বাচন নিয়ে সরব বিদেশিরা  বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টের নিরাপত্তা : ব্যাপক তোলপাড় সারাদেশ  শর্তসাপেক্ষে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ কর্মসূচী করার অনুমতি পেল বিএনপি অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে আবারো হত্যার হুমকি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে জার্মানীর পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাত

ভারতের সব মাদ্রাসা বন্ধ করে সেক্যুলার বিদ্যালয় বানানোর প্রস্তাব


অনলাইন ডেষ্ক

আপডেট সময়: ১০ জানুয়ারী ২০১৮ ৬:৪৯ পিএম:
ভারতের সব মাদ্রাসা বন্ধ করে সেক্যুলার বিদ্যালয় বানানোর প্রস্তাব

ভারতের মাদ্রাসা বোর্ডগুলিকে তুলে দেওয়া হোক। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কাছে এমনই দাবি করলেন সেদেশের শিয়া সম্প্রদায়ের মুসলিমদের এক নেতা। তিনি ভারতের শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভি। মাদ্রাসাগুলি সিভিল সার্ভেন্টদের চেয়ে বেশি পরিমাণে জঙ্গি তৈরি করছে। এমনটাই অভিযোগ করেছেন তিনি।

তাঁর প্রস্তাব, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের এডুকেশন বোর্ড কিংবা সিবিএসই কিংবা আইসিএসই-র মতো সাধারণ শিক্ষার আওতায় আনা হোক মাদ্রাসাগুলিকে। সেখানে ধর্মীয় শিক্ষাকে ঐচ্ছিক হিসেবে রাখা হোক। একইসঙ্গে তাঁর দাবি, যেসব মাদ্রাসার রেজিস্ট্রেশন নেই, সেগুলিকে বন্ধ করে দেওয়া হোক। রিজভি বিষয়গুলি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও দিয়েছেন। রিজভি একই ধরনের চিঠি দিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকেও।

মুসলিমদের মধ্যে নিরক্ষরতা এবং পিছিয়ে পড়ার জন্য দায়ী এই মাদ্রাসাগুলিই, বলেছেন শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভি। চিঠিতে রিজভি বলেছেন, শুধুমাত্র খারাপ পরিকাঠামোই নয়, এর সিলেবাসও মুসলিম যুবকদের ন্যাশনাল মেইনস্ট্রিম থেকে জঙ্গিবাদের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

মাদ্রাসাগুলিকে ভারতীয় মুসলিমদের কাছে পাপের মতো বলেই উল্লেখ করেছেন রিজভি। মাদ্রাসাগুলিতে ইসলামি আবহাওয়ার কারণে মুসলিম শিশুরা সরকারি কিংবা ধর্মনিরপেক্ষ স্কুলগুলি থেকে পিছিয়ে পড়ছে এবং অন্ধবিশ্বাসের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে। এমনটাই মন্তব্য করেছেন রিজভি।

রিজভির মতে, সঠিক শিক্ষার বদলে ভুল শিক্ষায় মুসলিমরা শিক্ষিত হচ্ছে। এর ফলে ন্যাশনাল মেইনস্ট্রিম থেকে দূরত্ব তৈরি হচ্ছে। সেই থেকেই তারা জঙ্গিদের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে। কেননা জঙ্গিদের মূল টার্গেটই হল গরিব ও পিছিয়ে পড়া শিশুরা।

একইসঙ্গে শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভির অভিযোগ, অবৈধভাবে চলা মাদ্রাসাগুলির দিকে। অবৈধভাবে চলা মাদ্রাসাগুলি চলছে জঙ্গি গোষ্ঠীর টাকায়। এমনটাই অভিযোগ করেছেন তিনি। এপ্রসঙ্গে রিজভি পশ্চিমবঙ্গের কথাও উল্লেখ করেছেন। কেননা এর আগে তদন্তে ধরা পড়ে বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদের একাধিক অবৈধ মাদ্রাসায় মহিলা জঙ্গিদের বম্ব তৈরি এবং অস্ত্র চালনার প্রশিক্ষণ দেওয়া হত।

মাদ্রাসা নিয়ে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকেও চিঠি দিয়েছেন রিজভি। চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন, উত্তর প্রদেশে প্রায় ১৬ হাজার মাদ্রাসা রয়েছে। যার মধ্যে অধিকাংশই ভুয়ো। কেননা সেগুলি নির্দিষ্ট নিয়মনীতি মেনে চলে না। এছাড়াও আরও প্রায় আড়াই হাজার অবৈধ মাদ্রাসা রয়েছে। রিজভি আরও জানিয়েছেন, ধর্মীয় কারণেই অন্য ধর্মের শিশুরা মাদ্রাসাগুলি থেকে দূরে থাকে।

এদিকে, শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভির চিঠির পাল্টা জবাব দিয়েছেন, অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন-এর প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসি। রিজভিকে তাঁর করা অভিযোগের প্রমাণ দিতে বলেছেন আসাদুদ্দিন। তাঁর মতে রিজভি চরম সুবিধাবাদী। আরএসএস-এর সঙ্গে রিভজির যোগাযোগ রয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন আসাদুদ্দিন ওয়াইসি।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top