Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৬:৩২ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা নেই : শিক্ষামন্ত্রী পরাজয় বিএনপির হয়নি, পরাজয় হয়েছে আ'লীগের : ফখরুল আওয়ামী লীগের ‘বিজয় সমাবেশ’ ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি  সাকিবের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ঢাকার দারুণ জয় ঐক্যফ্রন্ট আলোচনায় টিকে থাকতে সংলাপের নাটক  দ্বিতীয় স্যাটেলাইট ও দ্বিতীয় যমুনা সেতুর পরিকল্পনা করছি ৩৭ এজেন্সিকে শাস্তি, মামলার নির্দেশ আইসিসি নতুন সিইও হিসেবে নির্বাচিত মানু সোহনি সরকারের সঙ্গে অব্যাহতভাবে কাজ করবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে যাবে না বিএনপি

মহাকাশে পাঠানো গাড়িটি এখন কোথায়?


অনলাইন ডেষ্ক

আপডেট সময়: ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৩:২০ পিএম:
মহাকাশে পাঠানো গাড়িটি এখন কোথায়?

গত মঙ্গলবার ফ্যালকন হেভি নামের শক্তিশালী ইঞ্জিনবিশিষ্ট মহাকাশযানের পরীক্ষামূলক উড্ডয়নের সময় মহাকাশে একটি গাড়ি পাঠান স্পেসএক্স উদ্যোক্তা এলন মাস্ক। এরপর থেকেই গাড়িটি মহাকাশের কোথায় রয়েছে তা নিয়ে মানুষের কৌতুহলের শেষ নেই।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা গাড়িসমেত ফ্যালকন এক্স রকেটটির ওপর নজরদারি অব্যাহত রেখেছে। এজন্য তারা এটিকে শ্রেণীবদ্ধ করে একটি নম্বরও প্রদান করেছে। ভবিষ্যতে যেন কোনো উল্কাখণ্ডের সঙ্গে মিলিয়ে ফেলা না হয় সেজন্য এ কাজটি করেছে তারা।

সাধারণত মহাকাশে পরীক্ষামূলকভাবে রকেট উৎক্ষেপণের ক্ষেত্রে পাথর বা কংক্রিট দেওয়া হয়। তবে এ রকেটটিতে পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের সময় এলন মাস্ক তার অপর প্রতিষ্ঠান টেসলার নির্মিত ব্যক্তিগত রোডস্টার গাড়িটি ব্যবহার করেন।

উৎক্ষেপণের পর গাড়িটিকে নিয়ে ঠিকভাবেই মহাকাশে পৌঁছায় ফ্যালকন হেভি রকেটটি। এরপর মহাকাশে নিজস্ব গন্তব্যে এগিয়ে যাচ্ছে এটি। গাড়িটি রকেটে কিভাবে আছে, তা দেখার জন্য একটি ক্যামেরাও স্থাপন করা হয়েছে। তা থেকে প্রায় চার ঘণ্টা সরাসরি সম্প্রচার দেখা গেছে পৃথিবী থেকে। এরপর ব্যাটারি শেষ হয়ে যাওয়ায় তা আর দেখা যায়নি।

এলন মাস্ক তার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাকাউন্টে ফ্যালকন রকেটের ভেতরে গাড়িটির ছবি ও ভিডিও শেয়ার করেছেন।

প্রাথমিকভাবে অনেকেই মনে করেছিলেন, গাড়িটি মঙ্গলগ্রহের কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করবে। তবে পরবর্তীতে জানা যায়, এটি সূর্যের চারদিকেই প্রদক্ষিণ করবে। এর কক্ষপথ মঙ্গলগ্রহের কাছাকাছি হলেও পুরোপুরি এক হবে না। প্রতি ১৯ মাসে এটি সূর্যকে প্রদক্ষিণ করবে। এছাড়া সূর্যের রেডিয়েশনের কারণে এটি ভিন্ন কোনো দিকেও ধীরে ধীরে ভেসে যেতে পারে।

টেসলা রোডস্টার মডেলের লাল রঙের গাড়িটির ড্রাইভিং সিটে মহাকাশের পোশাকে একটি মানব পুতুলও বসিয়ে দেওয়া হয়। পুতুলটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘স্টার ম্যান’ বা নক্ষত্রমানব।

পৃথিবী থেকে শক্তিশালী টেলিস্কোপের মাধ্যমে গাড়িটি বহনকারী ফ্যালকন হেভি রকেটটিকে দেখেছেন গবেষকরা। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারাইজোনা রাজ্যের টেনাগ্রা অবজারভেটরি থেকে এটি দেখা গেছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। পাশাপাশি কয়েকটি ছবিও তোলা হয় এর। সে সময় পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব প্রায় চার লাখ ৭০ হাজার কিলোমিটার ছিল। তবে দ্রুত এটি পৃথিবী থেকে আরো দূরে চলে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন তারা।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top