Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ , সময়- ৭:৩৫ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
কবি বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সাংবাদিকের ওপর নির্যাতনের ঘটনায় দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে : ডিএমপি কমিশনার    রানা প্লাজার ধস : ২৪ এপ্রিল শ্রমিক নিরাপত্তা দিবস ঘোষণার দাবি । প্রজন্মকণ্ঠ দেশের অর্থনীতি শিগগিরই ভারত, মেক্সিকো ও তুরস্কের মতো হবে : সজীব ওয়াজেদ  আজ সানরাইর্জাস হায়দরাবাদের মুখোমুখি মুম্বাই ইন্ডিয়ানস । প্রজন্মকণ্ঠ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর ফেসবুক পেজ হ্যাকড, তারেকের পাসপোর্টকে নিয়ে দেয়া পোস্ট উধাও  এবার গ্লোবাল উইমেন’স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী গাজীপুর সিটি :  মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ  শেখ হাসিনার ‘সাহসী ও নির্ভীক নেতৃত্বের’ প্রশংসা করেছেন নরেন্দ্র মোদি শেখ হাসিনা কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই । প্রজন্মকণ্ঠ

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দিন | প্রজন্মকন্ঠ


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ২২ মার্চ ২০১৮ ৯:৫০ এএম:
উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দিন | প্রজন্মকন্ঠ

বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা উন্নয়ন করি। আর বিএনপি-জামায়াত জোট মিলে দেশকে পিছিয়ে দেয়। বিগত নির্বাচন ঠেকানোর নামে খালেদা জিয়ার নির্দেশে পুড়িয়ে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করা হয়েছে। খালেদা ও তার দুই ছেলে কালো টাকা সাদা বানিয়েছে। তাদের পাচারের টাকা বিদেশে ধরা পড়েছে। গতকাল বুধবার বিকালে চট্টগ্রামের পটিয়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি একথা বলেন। বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘তারা আইন মানবে না, কানুন মানবে না, কিছুই মানবে না। মানুষের সম্পদ কেড়ে খাবে, এতিমের টাকা কেড়ে খাবে। শাস্তি দিলো কেন– এ জন্য হুমকি-ধামকি আন্দোলন করছে। কিন্তু, জনগণ কোনো দুর্নীতিবাজ, জঙ্গি, সন্ত্রাসীর সঙ্গে নাই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনে গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দেইনি বলে ক্ষমতায় আসতে পারলাম না। আমেরিকার গ্যাস কোম্পানি বাংলাদেশের গ্যাস বিক্রি করবে ভারতের কাছে। আমেরিকা ষড়যন্ত্র করে আমাদের ক্ষমতায় আসতে দিলো না। চট্টগ্রামসহ সারাদেশে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হত্যার কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, আমাদের দলের অনেক নেতাকর্মী হত্যা করেছে, এত নাম বলেও শেষ করতে পারবো না। জামালউদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে গেলো বিএনপির লোক। ৬ মাস পর তার কঙ্কাল পাওয়া গেলো। তারা শুধু আমাদের দলের নেতাকর্মীদের হত্যা করেছে তা নয়, নিজের দলের নেতাকর্মীদেরও ছাড়ে নাই।’

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেই দেশে উন্নয়ন হয়। একমাত্র আমরা যদি নৌকা মার্কায় ভোট পাই তাহলেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা থাকবে। নৌকায় ভোট চেয়ে প্রধানমন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত নেতাকর্মীদের কাছে ওয়াদা চান। বলেন, আপনারা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দেবেন কি-না, হাত তুলে ওয়াদা করুন। তখন নেতাকর্মীরা হাত তুলে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেন। মুক্তিযোদ্ধাদের কারণে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাদের কারণেই এই দেশ বিধায় সবার আগে তাদের অধিকার। মুক্তিযোদ্ধাদের ছেলে-মেয়ে-নাতি-নাতনি সবাই সর্বাগ্রে অধিকার ভোগ করবে। সে কারণে চাকরিতে আমরা কোটার ব্যবস্থা করেছি।

মুক্তিযোদ্ধাদের কারণেই তো এই চাকরি করতে পারছেন, সুতরাং তাদের ছেলে-মেয়েরা এ সম্মান পাবেন। 
ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার দিয়ে সরকার তা পূরণ করেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সমগ্র বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু হয়েছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের নানামুখী উন্নয়ন কর্মসূচি তুলে ধরে বলেন, পুরো চট্টগ্রামে বর্তমান সরকার ব্যাপকভাবে উন্নয়ন করছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, শিক্ষা, বিশেষ করে মেয়েদের শিক্ষায় সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, আমরা ১ কোটি ৩০ লাখ মায়ের হাতে উপবৃত্তির টাকা দিচ্ছি, যেন তাদের সন্তানরা পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামে ৪২টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সরকারের ১৩টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ২৮টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। 
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রাম এসে বিএনএ এবং ঈসা খান প্যারেড গ্রাউন্ডে বিএন ডকইয়ার্ডকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড (জাতীয় পতাকা) প্রদান এবং বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করেন। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভা সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিম-লীর সদস্য মোশাররফ হোসেন, প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছালাম, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আজম নাছির উদ্দিন প্রমুখ। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, এনামুল হক শামীম, উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ। 

বেলা তিনটা ১০ মিনিটে জনসভাস্থলে এলে– শেখ হাসিনার আগমন, শুভেচ্ছা স্বাগতম সেøাগান ওঠে। বিশ্ব নেত্রীর আগমন, শুভেচ্ছা স্বাগতম, শেখ হাসিনা, শেখ হাসিনা’ সেøাগান চলতে থাকলে হাত নেড়ে অভিবাদন জানান তিনি। পরে ২৮টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও ১৩টি উন্নয়ন প্রকল্পের উন্মোচন করেন। 

পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বুধবার বেলা তিনটায় জনসভা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এর আগেই জনসমুদ্রে পরিণত হয় জনসভা স্থল। সকাল থেকেই আশপাশের উপজেলা থেকে ঢাকঢোল বাজিয়ে জনসভায় আসতে শুরু করে স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

শেখ হাসিনার আগমনী বার্তায় রাজপথ ভরে ওঠে। 
নেতাকর্মীদের মুহুর্মুহু স্লোগানে প্রকম্পিত হয় পুরো এলাকা। তীব্র রোদ্র উপেক্ষা করে বিদ্যালয় মাঠে অবস্থান নেন জনসভায় যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীরা।

দুপুর ১২টার মধ্যেই জনসভাস্থল কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। প্রধানমন্ত্রী যেসব উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন : মুরাদপুর ২ নম্বর গেইট এবং জিইসি মোড় জংশনে ফ্লাইওভার নির্মাণ (আক্তারুজ্জামান চৌধুরী ফ্লাইওভার); চট্টগ্রাম জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স ভবন; কালুরঘাট-মনসারটেক জাতীয় মহাসড়কে (এন-১০৭) ৮ কিলোমিটারে ৮১.৯৮ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার সেতু (মিলিটারি সেতু); পটিয়া-চন্দনাইশ-বৈলতলী সড়কের (জেড-১০৩৯) ১৭তম কিলোমিটারে ৩৪৮.১২ মিটার দীর্ঘ খোদারহাট সেতু; বাংলাদেশ মহিলা সমিতি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কোতোয়ালি, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৫তলা একাডেমিক ভবন; হাজেরা তজু ডিগ্রি কলেজ, চান্দগাঁও, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৫তলা একাডেমিক ভবন; খলিল মীর ডিগ্রি কলেজ, পটিয়া, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৪তলা একাডেমিক ভবন; পশ্চিম বাঁশখালী উপকূলীয় ডিগ্রি কলেজ, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৪তলা একাডেমিক ভবন; হেয়াকো বনানী কলেজ, ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৪তলা একাডেমিক ভবন; রাঙ্গুনিয়া মহিলা কলেজ, রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৪তলা একাডেমিক ভবন; প্রফেসর কামাল উদ্দীন চৌধুরী কলেজ, মিরসরাই, চট্টগ্রাম, আইসিটি সুবিধাসহ ৪তলা একাডেমিক ভবন; নাজিরহাট মাইজভান্ডার সড়ক; শেখ রাসেল ভাস্কর্য ও শেখ রাসেল মঞ্চ, দক্ষিণভূর্ষি, পটিয়া, চট্টগ্রাম। 

এদিকে প্রধানমন্ত্রী সরকারের যেসব উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন : চট্টগ্রাম শহরে লালখান বাজার হতে শাহ আমানত বিমানবন্দর পর্যন্ত এলিভিটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ; কর্ণফুলী নদীর তীর বরাবর কালুরঘাট সেতু হতে চাক্তাই খাল পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ; চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনকল্পে খাল পুনর্খনন সম্প্রসারণ, সংস্কার ও উন্নয়ন; চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলার সাঙ্গু ও ডলু নদীর তীর সংরক্ষণ প্রকল্প; কর্ণফুলী নদীর সদরঘাট হতে বাকলিয়ারচর পর্যন্ত ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নাব্য বৃদ্ধি।

অনন্যা : ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; কল্পলোক ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; মাইজ্জারটেক ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; রহমতগঞ্জ ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; এফআইডিসি কালুরঘাট ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; অক্সিজেন ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; কাট্টলী ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ; মনছুরাবাদ ৩৩/১১ কেভি, ২০/২৬ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ।

চট্টগ্রাম জেলার জরাজীর্ণ ও সংকীর্ণ কালারপোল-ওহিদিয়া সেতুর স্থলে ১৮০ মিটার সেতু নির্মাণ; কেরানীহাট-সাতকানিয়া-গুনাগরী জেলা মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন; পটিয়া-আনোয়ারা-বাঁশখালী টইটং আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন; বড়তাকিয়া (আবু তোরাব) থেকে মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল সংযোগ সড়ক; বারৈয়ারহাট (চট্টগ্রাম জোন) হেয়াকো-নারায়ণহাট-ফটিকছড়ি আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্থকরণ ও উন্নয়ন; পটিয়া উপজলোর রাজঘাটা শ্রীমাই খালের উপর সেতু; ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট-কাজিরহাট সড়কে খালের উপর ৫৪ মিটার সেতু নির্মাণেরও ভিত্তি স্থাপন করা হয়।

এছাড়াও পটিয়া পিটিআই এর একাডেমিক ভবন; সীতাকুন্ড টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ডবলমুরিংয়ে আগ্রাবাদ মহিলা কলেজ ও পোস্তারপাড় আছমা খাতুন সিটি কর্পোরেশন মহিলা কলেটে পাঁচতলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ; খুলশীতে সরকারি মহিলা কলেজে ১০০ শয্যা ছাত্রী নিবাসের নির্মাণ কাজেরও ভিত্তি স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। বাকি প্রকল্পগুলো হলো চট্টগ্রাম মুসলিম ইনস্টিটিউট সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে স্থাপন, পটিয়া পৌর মাল্টি পারপাস কিচেন মার্কেট নির্মাণ; হর্টিকালচার সেন্টার এবং পটিয়ায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top