Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৮:১১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা হলেন সালমান আরেকটি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা : কারণ এবং প্রতিকার কী ? পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর ভারত প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পেলেন জয়  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু ৫ আমি কখনও সংলাপের কথা বলিনি : ওবায়দুল কাদের কাদের'কে স্টেডিয়ামে প্রকাশ্যে মাফ চাওয়ার আহ্বান  বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান সংরক্ষিত নারী আসনে আ'লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু  পদ্মা সেতুর পাশেই হবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

একের পর এক অশ্লীল কথাবার্তার ভিডিও ছড়িয়ে দিচ্ছেন সেফুদা 


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১৪ আগস্ট ২০১৮ ৩:০৬ পিএম:
একের পর এক অশ্লীল কথাবার্তার ভিডিও ছড়িয়ে দিচ্ছেন সেফুদা 

বর্তমান সময়ে ভার্চুয়াল জগতে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের অঙ্গভঙ্গি কিংবা অশ্লীল কথাবার্তা বলছে। বাংলাদেশে আইসিটি আইন থাকায় অনেকেই স্লোশাল মিডিয়ায় রাজনৈতিক সমালোচনা থেকে বিরত থাকেন। কিন্তু যারা দেশের বাহিরে থাকে তারাই অনেকে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবের মাধ্যমে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নাম ধরে অশালীন কথাবার্তা ছাড়াচ্ছেন। যা বাংলাদেশের কিছু মানুষ আনন্দ হিসেবে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছেন।

তেমনই একজন সেফাতুল্লাহ ওরফে সেফুদা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই সময়ের সবচেয়ে আলোচিত-সমালোচিত ব্যক্তি। কিম্ভুককিমাকার ভঙ্গিতে অদ্ভুত, অশ্লীল আর বেপরোয়া কথাবার্তা ছড়াচ্ছে ভার্চুয়াল জগতে। অস্ট্রিয়া প্রবাসী এই বাংলাদেশির এমন কর্মকাণ্ডে বিব্রত পরিবার। তার মতো অশালীন বক্তব্য ছড়াচ্ছে আরও অনেকে। পুলিশ বলছে, বিদেশে বসে যারা প্রতিনিয়ত এদেশে বিশৃঙ্খলা ছড়াচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সেয়াফেত উল্লাহ ওরফে সেফুদা দিনরাত বিশ্রী অঙ্গভঙ্গিতে আজগুবি, অশ্লীল আর বেপরোয়া কথা বার্তাসম্বিলত ভিডিও ছেড়ে দিচ্ছেন ফেসবুকে। আর, তাতেই যেন মজে গেছেন বাংলাদেশের অসংখ্য ফেসবুক ব্যবহারকারী। ফেসবুক ট্রলের একটি বড় অংশে এখন কথিত সেফুদার আধিপত্য। অনেকেই মনে করছেন, এ ধরনের চর্চা মানুষের শ্রেয়বোধ ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

খোদ সেপায়েত উল্লাহর পরিবারের বিব্রত তার এমন কর্মকাণ্ডে। সেফায়েতউল্লাহ স্ত্রী জানান, ২৮ বছর আগে দেশ ছাড়েন তিনি; বর্তমানে তিনি মানসিক রোগে আক্রান্ত।

কয়েক মাসে, আসাদ পং-পং নামেও এক মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেই এমন বেপরোয়া ও অশ্লীল ভিডিও ছড়িছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বাংলাদেশের শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নিয়ে কটুক্তি করায় তাকে গ্রেপ্তার করে মালয়েশিয়া পুলিশ। বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক বলছেন, দেশের বাইরে বসে যারা দেশ নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, সময়মতো ব্যবস্থা না নেয়ার কারণেই ফেসবুকে অপব্যবহার বাড়ছে। তিনি জানান, এ ধরনের কর্মকাণ্ড রোধে সরকার শিগগিরি ইন্টারনেটে আড়ি পাতার ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে।

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top