Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৮:১১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা হলেন সালমান আরেকটি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা : কারণ এবং প্রতিকার কী ? পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর ভারত প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পেলেন জয়  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু ৫ আমি কখনও সংলাপের কথা বলিনি : ওবায়দুল কাদের কাদের'কে স্টেডিয়ামে প্রকাশ্যে মাফ চাওয়ার আহ্বান  বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান সংরক্ষিত নারী আসনে আ'লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু  পদ্মা সেতুর পাশেই হবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

লক্ষ লক্ষ তরুণ-তরুণীদের কাঁদিয়ে ‘এবি’ উড়াল দিলেন আকাশে । প্রজন্মকণ্ঠ 


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ২১ অক্টোবর ২০১৮ ১:০৫ এএম:
লক্ষ লক্ষ তরুণ-তরুণীদের কাঁদিয়ে ‘এবি’ উড়াল দিলেন আকাশে । প্রজন্মকণ্ঠ 

অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা ও সংগীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু আর নেই৷ যাঁর গানের কথা ও সুর লক্ষ লক্ষ তরুণ-তরুণীর চোখে জল এনেছে, তাঁর মৃত্যুতে স্তব্ধ বাংলা৷ 

বাবা-মা’র রবিন, ভক্তদের ‘এবি’ :  আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন৷ বাবা-মা আদর করে ডাক নাম দেন রবিন৷ ছোটবেলা থেকেই ছিল সংগীতের প্রতি ব্যাপক আগ্রহ৷ তবে সংগীত জগতে বাচ্চুর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ফিলিংস ব্যান্ডের সাথে, ১৯৭৮ সালে৷ শহীদ মাহমুদ জঙ্গীর কথায় ‘হারানো বিকেলের গল্প’ তাঁর কন্ঠ দেয়া প্রথম গান৷ ১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সালে তিনি সোলস ব্যান্ডের সাথে যুক্ত ছিলেন৷

প্রথম অ্যালবাম : আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম প্রকাশিত একক অ্যালবাম ‘রক্তগোলাপ’ প্রকাশ হয় ১৯৮৬ সালে৷ এই অ্যালবামটি তেমন একটা সাফল্য না পেলেও ১৯৮৮ সালে দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘ময়না’ প্রকাশের পর আইয়ুব বাচ্চুর সফলতার গ্রাফ আর কখনো নীচে নামেনি৷

লাভ রানস ব্লাইন্ড : এলআরবি আর বাচ্চু পরস্পর থেকে অবিচ্ছেদ্য৷ সোলস ছাড়ার পর ১৯৯১ সালে গঠন করেন এলআরবি৷ শুরুতে এর নাম ছিল ‘লিটল রিভার ব্যান্ড’, পরে নাম পরিবর্তন করে ‘লাভ রানস ব্লাইন্ড’ করা হয়৷ এলআরবি নামেই ১৯৯২ সালে ব্যান্ডের প্রথম অ্যালবাম প্রকাশিত হয়৷ এটি বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রথম দ্বৈত অ্যালবাম৷ এই অ্যালবামের ‘শেষ চিঠি কেন এমন চিঠি’, ‘ঘুম ভাঙ্গা শহরে’, ‘হকার’ গানগুলো জনপ্রিয়তা লাভ করে৷

‘রূপালি গিটার’ : ১৯৯৩ ও ১৯৯৪ সালে প্রকাশিত হয় দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যান্ড অ্যালবাম ‘সুখ’ ও ‘তবুও’৷ সুখ-এর ‘চলো বদলে যাই’ ও ‘রূপালি গিটার’ বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় গান৷ ‘চলো বদলে যাই’ গানটির কথা ও সুর বাচ্চুরই৷ ১৯৯৫ সালে তৃতীয় একক অ্যালবাম ‘কষ্ট’কে অনেকেই সর্বকালের সেরা একক অ্যালবাম হিসেবে আখ্যা দিয়ে থাকেন৷ এই অ্যালবামের ‘কষ্ট কাকে বলে’, ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি’, ‘অবাক হৃদয়’ ও ‘আমিও মানুষ’ ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়৷

‘অনন্ত প্রেমের’ সন্ধান : অনেক বাংলা ছবিতেও প্লেব্যাক করেছেন আইয়ুব বাচ্চু৷ তাঁর গাওয়া প্রথম চলচ্চিত্রের গান ‘লুটতরাজ’ ছবির ‘অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে’ বাংলা ছবির অন্যতম একটি জনপ্রিয় গান৷ এছাড়া ‘সাগরিকা’ ছবির ‘আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকে’, ‘ব্যাচেলর’ ছবির ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি’, ‘আম্মাজান’ ছবির ‘আম্মাজান’, বাংলা সিনেমার ইতিহাসের সবচেয়ে জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে স্থান করে নিয়েছে৷

অনবদ্য গিটার : বাংলাদেশ তো বটেই, ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম গিটারিস্টের মর্যাদা দেয়া হয় আইয়ুব বাচ্চুকে৷ গিটারের সংগ্রহও ছিল বাচ্চুর৷ এর মধ্যে পাঁচটি গিটার নতুন প্রজন্মের হাতে তুলে দিতে দেশব্যাপী গিটার প্রতিযোগিতা করতে চেয়েছিলেন তিনি৷ অর্থায়নের সংকটে সে উদ্যোগ সফল না হওয়ায় ক্ষুব্ধ বাচ্চু নিজের গিটারগুলো নিলামে তুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন একবার৷ ঢাকার মগবাজারে ‘এবি কিচেন’ নামে নিজের স্টুডিও গড়ে তোলেন আইয়ুব বাচ্চু৷


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top